রাজশাহীতে বিশ্ব ভোক্তা-অধিকার দিবস উদযাপিত II জনগণকে তার অধিকার সম্পর্কে সচেতন করতে হবে: বিভাগীয় কমিশনার

আপডেট: মার্চ ১৫, ২০২৪, ১০:৪৩ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:রাজশাহীতে বিশ্ব ভোক্তা-অধিকার দিবস উদযাপিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে শুক্রবার (১৫ মার্চ) সকালে বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিভাগীয় কমিশনার ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) কল্যাণ চৌধুরী।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিভাগীয় কমিশনার ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর বলেন, পবিত্র রমজান মাসে কোন অসাধু ব্যবসায়ী যেন ভোক্তাদের হয়রানি করতে না পারে, সেজন্য সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে হবে। এক্ষেত্রে জনগণকে তার অধিকার সম্পর্কে সচেতন করতে হবে। নিজের অধিকার সম্পর্কে সচেতন হলে জনগণ সোচ্চার হয়ে উঠবে এবং এতে করে অধিদপ্তরের কাজ অনেকাংশেই সহজ হবে। ভোক্তার অধিকারগুলো সংরক্ষণ হলে টেকসই উন্নয়ন সম্ভব হবে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশ হিসেবে বাংলাদেশ বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারবে। সেই সাথে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে ডিজিটাল হয়রানি রোধে সকলকে সচেতন হতে হবে এবং নিজ নিজ অবস্থান থেকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানান তিনি।

এসময় জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. ইব্রাহীম হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) তরফদার মো. আক্তার জামীল, বিজিবি-১ রাজশাহীর অধিনায়ক লে. কর্ণেল মতিউল ইসলাম মন্ডল, র‌্যাব-৫ রাজশাহীর অধিনায়ক লে. কর্ণেল মো. মুনীম ফেরদৌস, রাজশাহী রেঞ্জ কার্যালয়ের পুলিশ সুপার মো. মনিরুল ইসলাম, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাসুদুর রহমান রিংকু, রাজশাহী উইমেন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি রোজেটি নাজনীন, কনজুমার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) রাজশাহীর কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা খাদেমুল ইসলাম।

মুক্ত আলোচনা বক্তব্য রাখেন- কনজুমার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) রাজশাহীর সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা মামুন ও সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান, পরিবেশ অধিদপ্তর রাজশাহী জেলা কার্যালয় সহকারী পরিচালক মো. কবির হোসেন, রাজশাহী ব্যবসায়ী সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. সেকেন্দার আলী, রাজশাহী ঔষুধ ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি হারুন-অর-রশিদ, রাজশাহী প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইদুর রহমান, সাংবাদিক রাশেদ রিপন।

এসময় উপস্থিত বক্তারা বলেন, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন একটি সরকারী সংস্থা। সংস্থাটি পণ্য ও পরিষেবা সংক্রান্ত ভোক্তাদের অভিযোগ গ্রহণ, অভিযোগ নিষ্পত্তি এবং ভোক্তাদের অধিকার সংরক্ষণের উদ্দেশ্যে কাজ করে। ভোক্তাদের অধিকার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইন- ২০০৯ সঠিকভাবে প্রয়োগ করতে হবে। আইনের আওতায় শুধুমাত্র প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করলেই হবে না, ভোক্তাদের সুরক্ষায় ফৌজদারি ও দেওয়ানী প্রতিকারের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। ডিজিটাল প্রতারণা রোধে এবং ভবিষ্যতে ভোক্তা অধিকার রক্ষায় অধিদফতর সহ জনগণকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে।

এর আগে ‘স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ি, ভোক্তার স্বার্থে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করি’- শ্লোগানকে সামনে বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয় থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিতে রাজশাহী বিভাগের স্থানীয় সরকার শাখার পরিচালক পারভেজ রায়হান, জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ ও সোনার দেশ পত্রিকার সম্পাদক আকবারুল হাসান মিল্লাতসহ বিভাগের বিভিন্ন দফতরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ