বিশ্ব মোড়লরা দুমুখো নীতিতে বিশ্বাস করে: প্রধানমন্ত্রী

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৪, ৫:৪৩ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক :প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের বিশ্ব মোড়লরা দু’মুখো নীতিতে বিশ্বাস করে। এক জায়গায় ফিলিস্তিনের সমস্ত জমি দখল করে রেখেছে, ওটা ইনভেশন না। ইউক্রেনেরটা ইনভেশন! এই দু’মুখো নীতি কেন হবে, সেটা আমার প্রশ্ন ছিল। অনেকেই সাহস করে বলবে না। আমি বলেছি।

জার্মানির মিউনিখে নিরাপত্তা সম্মেলন অংশ নেয়ার অভিজ্ঞতা জানাতে গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।
সাংবাদিকের এক প্রশ্নোত্তরে তিনি বলেন, অনেকেই সাহস করে বলবে না। নানাজনের নানা দুর্বলতা আছে, আমার কোনো দুর্বলতা নাই। আমার কোনো চাওয়া-পাওয়াও নাই। আমার কাছে ক্ষমতাটা হলো ‘থাকে লক্ষ্মী যায় বলাই’, একটা কথা আছে না! আমার কাছে সেটাই। থাকলে ভালো! আমি দেশের জন্য কাজ করতে পারবো। না থাকলে আমার কোনো আফসোস নেই।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি যুদ্ধ চাই না। যুদ্ধকালীন যে কষ্ট আমি নিজেই ভুক্তভোগী। দেশের মানুষ যে গণহত্যার শিকার হয়েছেন সেটা তো আমি জানি! সেজন্য সব সময় বলে আসছি আমরা যুদ্ধ চাই না, শান্তি চাই। আজ ফিলিস্তিনে যা হচ্ছে সেটা তো অমানবিক কাজ। হাসপাতালের ওপর আক্রমণ। হাসপাতালে গিয়ে মানুষ মারা হচ্ছে। বাচ্চাদের কী দূরবস্থা! এটা তো মানবতাবিরোধী।

শেখ হাসিনা বলেন, আমার লক্ষ্য ছিল ২০২১ পর্যন্ত থাকতে হবে। বাংলাদেশকে একটা ধাপে তুলতে হবে। আমি সেটা করে দিয়েছি। আমি ক্ষমতায় আসবো কী আসবো না, আমি তো পরনির্ভরশীল হয়ে করি নি। আমার একমাত্র নির্ভরতা দেশের জনগণ। সবসময় চেয়েছি জনগণের সমর্থন, জনগণের সহযোগিতা পেয়ে…হ্যাঁ আন্তর্জাতিক সহযোগিতা পেয়ে, বন্ধুত্ব প্রয়োজন।

দেশের উন্নয়নের জন্য প্রয়োজন হবে। এখন তো বিশ্বটা গ্লোবাল ভিলেজ, একে অন্যের ওপর নির্ভরশীল। আমাদের অনেক জিনিস কিনতে হচ্ছে, আমরা বাধা পাচ্ছি। সেক্ষেত্রে আমরা বলেছি যুদ্ধটা যখন শুরু হয়, নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়, সেটা ওই জায়গায় সীমাবদ্ধ থাকে না। এটা সারা বিশ্ব ছড়িয়ে পড়েছে। বিভিন্ন দেশে মুদ্রাস্ফীতি ছড়িয়ে পড়েছে।
তথ্যসূত্র: বাংলাট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ