বিশ্ব রেকর্ডের নেশায় মাথায় ফুটবল নিয়ে ১০০ কিমি

আপডেট: নভেম্বর ২৪, ২০১৬, ১০:২৬ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক
ধরুন, আপনাকে বলা হলো, ঢাকা থেকে কুমিল্লা যাবেন। তবে একটানা সাইকেল চালিয়ে। পারবেন? ভ্রান্ত আত্মবিশ্বাসে বুক ফুলে উঠলে এটুকু মনে করিয়ে দেওয়া যাক, দূরত্বটা কিন্তু ১২০ কিলোমিটারের মতো!
খুবই কঠিন হবে কাজটা, তবে তারপরও হয়তো কেউ কেউ পারবেন। এবার কাজটা একটু কঠিন করে দেওয়া যাক, পুরো রাস্তায় সাইকেল চালানোর সময় একটা ফুটবল থাকবে আপনার মাথায়।
রীতিমতো অসম্ভব, না? এই অসম্ভব কাজই করেছেন নাইজেরিয়ার এক ফুটবলার-হ্যারিসন শিনেডু। ফুটবলটাকে মাথায় রেখে সাইকেলে পাড়ি দিয়েছেন পুরো ১০৩.৬ কিলোমিটার। একটাবারের জন্যও বলটা পড়তে দেননি মাথা থেকে।
এতেই শিনেডু এখন দাবি করছেন গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নিজের নামটি লেখানোর। মাথায় ফুটবল রেখে সাইকেল চালিয়ে এর চেয়ে বেশি পথ পাড়ি দেওয়ার রেকর্ড নাকি আর নেই। তবে তাঁর নাম আসলেই গিনেসের বইয়ে উঠবে কি না, সেটি জানতে আরও ৯০ দিন অপেক্ষা করতে হবে। গিনেস কর্তৃপক্ষ সবকিছু পরীক্ষা করে দেখবে। সত্যিই রেকর্ডটা হলে শিনেডুর নাম উঠে যাবে বইয়ে।
নাইজেরিয়ার ফুটবলার হলেও শিনেডু খেলেন কম্বোডিয়ার লিগে। ১০ বছর ধরে খেলছেন ফুটবল। তবে পায়ের পাশাপাশি মাথায়ও যে ভালোই খেলতে পারেন, সেটি বুঝতে পেরেই ছুটেছেন রেকর্ডের দিকে। সিএনএনকে শিনেডু নিজেই বলেছেন, ‘আমি এটা করেছি, কারণ ঈশ্বর-প্রদত্ত যে প্রতিভা আমার আছে, সেটিকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরতে চেয়েছি। বিশ্বজুড়ে তরুণদেরও উজ্জীবিত করতে চেয়েছি, যেন কখনো করেনি, এমন কিছু করতে তারা উদ্বুদ্ধ হয়।’
তা এই লম্বা যাত্রায় সবচেয়ে কঠিন অংশটা কী ছিল? শিনেডুই জানালেন, সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং অংশ ছিল একো ব্রিজ নামে একটা জায়গা। লাগোস লেগুনের ওপর এই ব্রিজটির দৈর্ঘ্য ৩.৪৩ কিলোমিটার, যা কিনা লাগোস দ্বীপ ও লাগোসের মূল ভূমির মধ্যে সংযোগ তৈরি করেছে। সূত্র: সিএনএন,প্রথম আলো অনলাইন।