বিয়েতে অস্বীকার, প্রেমিককে পুড়িয়ে মারল তরুণী!

আপডেট: ডিসেম্বর ৯, ২০১৬, ১২:০১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


দীর্ঘ দিনের শরীরী প্রেম। তার জেরে তরুণীর গর্ভিণী হয়ে পড়া। প্রেমিককে বিয়ের প্রস্তাব দিলে তার দায় এড়িয়ে যাওয়া। সম্পর্কের এরকম পরিণতি দেখে শেষ পর্যন্ত প্রেমিককে পুড়িয়ে মারল এক তরুণী। ২৮ নভেম্বর ঘটনাটি ঘটেছে বেঙ্গালুরুর একটি লজে।
পুলিশ জানিয়েছে, বছর একুশের ওই তরুণীর নাম শ্রুতি। মাইসুরুবাসী ওই তরুণী বেঙ্গালুরুর একটি কলেজে প্যারামেডিক্যাল বিভাগের ছাত্রী ছিলেন। রোজ সপ্তাহান্তে ট্রেনে করে বাড়ি ফেরার সময় তার সঙ্গে আলাপ হয় বেঙ্গালুরু স্টেশনের চা-বিক্রেতা মনসুরের। দেখতে দেখতে নিবিড় হয়ে ওঠে বছর আঠাশের মনসুরের সঙ্গে শ্রুতির শরীরী প্রেম। ঘটনায় গর্ভবতী হয়ে পড়ায় অবশেষে মনসুরকে বিয়ের প্রস্তাব দেয় শ্রুতি। কিন্তু মনসুর রাজি হয় না। বরং শ্রুতিকে গর্ভপাতের রাস্তা বেছে নিতে বলে।
তবে শ্রুতি কী রাস্তা বেছে নিতে চলেছে, তা মনসুরের কাছে স্পষ্ট ছিল না। পুলিশ জানিয়েছে, ২৮ নভেম্বর দুজনে শান্তালা এলাকায় শ্রী কৃষ্ণ লজে একটি ঘর নেয়। প্রায় সাড়ে এগারোটার সময় লজের ঘর থেকে চিৎকার করতে করতে বেরিয়ে আসে শ্রুতি। দেখা যায়, তাদের ঘরে আগুন জ্বলছে। সেই আগুনের মধ্যে পড়ে রয়েছে মনসুর। এর পর পুলিশ দু’জনকেই হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে মনসুরের মৃত্যু হয়। অন্য দিকে চিকিৎসকরা জানান, শ্রুতির পেটে ঘুমের ওষুধ পাওয়া গিয়েছে।
পুলিশের জেরার উত্তরে শ্রুতি প্রাথমিক ভাবে জানায়, সে গর্ভবতী হয়ে পড়েছিল এবং বিয়ে করার উপায় ছিল না। তাই দুজনে আত্মহত্যা করতে ওই লজের ঘর ভাড়া নেয়। কিন্তু তার কৈফিয়ত সন্তোষজনক মনে না হওয়ায় জেরা চলতেই থাকে। অবশেষে জেরার মুখে ভেঙে পড়ে শ্রুতি, জানায়- সেই মনসুরকে হত্যা করেছে! প্রথমে সে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে মনসুরকে অচৈতন্য করে ফেলে। তার পর লজের ঘরে মনসুরকে ফেলে রেখে আগুন জ্বালিয়ে দেয়! কেন না, মনসুর তার সন্তানের দায় নিতে অস্বীকার করেছিল!
পুলিশ আপাতত শ্রুতিকে জেল হেফাজতে রেখেছে। গোটা ঘটনার তদন্ত করছে তারা।-সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ