বিয়ের কবলে ভারত-ইংল্যান্ড দল!

আপডেট: জানুয়ারি ১৯, ২০১৭, ১২:০৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিয়ে তো ভালো একটা ব্যাপার। জগতের নিয়ম। কিন্তু সেই বিয়ে যে বাড়তি ঝামেলা হয়ে আসবে ভারত ও ইংল্যান্ড চলমান সিরিজের জন্য তা কে জানতো! এমনিতে ভারতের বোর্ডে এখন ঝামেলার শেষ নেই। তার সাথে নতুন ঝামেলা। বৃহস্পতিবার কটকে ভারত-ইংল্যান্ড দ্বিতীয় ওয়ানডে। ওখানে বিয়ের মৌসুম চলছে। তাই পাঁচতারা হোটেল খালি নেই! সে কারণে ম্যাচের ঠিক আগের দিন মানে, বুধবার দুপুরে কটকে গিয়ে হোটেলে চেক ইন করতে হলো দুই দলকে। ভারতীয় ক্রিকেট যন্ত্রের কাহিল অবস্থা আরো একবার তাতে প্রকট হয়ে ফুটে উঠল সামনে।
বোর্ডের ব্যাপক অনিয়মের কারণে লোধা কমিটি হলো। লোধা কমিটির সুপারিশ মানল না ভারত বোর্ড। তাতে শেষ পর্যন্ত বোর্ড প্রেসিডেন্ট অনুরাগ ঠাকুর ও তার মূখ্য সচীব বরখাস্ত হলেন সুপ্রিম কোর্টের রায়ে। ওদিকে আবার উরিশ্যা ক্রিকেট সংস্থার সচিব আশির্বাদ বেহেরা লোধা কমিটির সুপারিশে পদ হারিয়েছেন। কিন্তু আপদকালিন দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি আবার নিজেদের দোষ মানতে নারাজ, ‘বোর্ড তো আগেই জানতো এই সফরের সূচি। এখন অন্যায় ভাবে আমাদের ক্রিকেট সংস্থাকে দোষ দেওয়া হচ্ছে।‘ এই জটিলতা নিয়ে বেহরার ব্যাখ্যা, ‘গত অক্টোবরেই আমরা ভুবনেশ্বরের হোটেলে রুমের জন্য চিঠি দিয়েছিলাম। কিন্তু তারা জানায়, বিয়ের মৌসুম বলে ৬ মাস আগেই সব রুম ভাড়া হয়ে গেছে। বোর্ড আমাদের ম্যাচটা দেওয়ার সাথে সাথেই হোটেল কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করেছিলাম আমরা। তখনই জানিয়েছিলাম, ১৮ জানুয়ারি দুপুরে দুই দল হোটেলে চেক-ইন করবে।’
তার প্রশ্ন, তাহলে তাদের দোষ কোথায়? পুনেতে তিন ম্যাচের সিরিজের প্রথম ওয়ানডেটা হয়েছে গত ১৫ জানুয়ারি। যেটি অধিনায়ক বিরাট কোহলির বীরত্বে অবিশ্বাস্য ভাবে জিতেছে ভারত। সাধারণত, ম্যাচের পর দিনই পরের গন্তব্যে চলে যায় দুই দল। কিন্তু এবার ভারত-ইংল্যান্ড দলকে কটকের বিয়ের মৌসুমের কবলে পড়তে হলো। আর তাই সেখানে গিয়ে অনুশীলনের সুযোগও মিলল না। হোটেলে পৌঁছে ধাতস্ত হতে না হতেই পরের দিন মাঠে নেমে পড়তে হচ্ছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ