বিয়ের দাবিতে ঢাকা ইডেন কলেজের ছাত্রী রাজশাহীর তানোরে

আপডেট: সেপ্টেম্বর ৩, ২০২২, ১১:৩২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :


দীর্ঘ চার বছরের প্রেমের সর্ম্পক ভেঙ্গে অন্য মেয়েকে বিয়ে করায় প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে ঢাকা ইডেন কলেজের এক ছাত্রী। গত রোববার (২৮ আগস্ট) তারিখে রাজশাহী তানোর উপজেলার চান্দুরিয়ায় ছেলের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেয় সে। ছেলের বাবা-মা বাসায় উঠতে না দেয়ায় বাসার বাইরে অনশন শুরু করে।

পরে ৩০ আগস্ট আয়েশা আক্তার রুমি (২৪) নামের ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে রাজশাহীর তানোর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে করে পুলিশ। বর্তমানে সে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি রয়েছে।

ওই ছেলের নাম জুয়েল রানা। সে রাজশাহীর তানোর উপজেলার চান্দুড়িয়া গ্রামের রেজাউল ইসলামের ছেলে। সে ঢাকায় একটি ওষুধ কোম্পানিতে কাজ করে।

আর আয়েশা আক্তার রুমি বরিশাল ঝালোকাঠির আলাউদ্দিনের মেয়ে। সে ঢাকা ইডেন কলেজ থেকে অনার্স কমপ্লিট করে বর্তমানে আড়ং এ কর্মরত আছে। তার বাবা-মা ঢাকা ফরিদপুরে একটি জুট মিলে কাজ করে।

আয়েশা আক্তার রুমি (২৪) জানান, জুয়েলের সঙ্গে তার ২০১৮ সাল থেকে প্রেমের সম্পর্ক। এরমধ্যে জুয়েল কাউকে কিছু না জানিয়ে তার সঙ্গে প্রতারণা করে অন্য একটি মেয়েকে বিয়ে করেছে। বিয়ের দাবিতে তিনি জুয়েলের বাড়িতে আসলে তার পরিবার তাকে বাড়িতে প্রবেশ করতে দেয় নি। তাকে খাবার পর্যন্ত দেয় নি। তিনি এই প্রতারণার বিচার দাবি করেন।

তার দাবি, ঢাকায় জুয়েল যে বাসায় থাকে সেখানে সবাই জানে তারা বিবাহিত। জুয়েলের বন্ধু-বান্ধবরাও তাদের সর্ম্পকের বিষয়ে জানে। অথচ সে গত ১৬ আগস্ট অন্য একটি মেয়েকে বিয়ে করেছে। এঘটনায় সঠিক বিচার চান ভুক্তভোগী আয়েশা।

এ বিষয়ে তানোর থানার এসআই হাফিজুর রহমান জানান, বিষয়টি জানার পরপরই তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই নারীকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করেন। এই মেয়ের পরিবারের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তারা কেউ ফোন রিসিভ করছেন না। আর ওই ছেলেও এখানে নেই। সে ঢাকায় আছে। পুলিশের পক্ষ থেকে ঢাকায় গিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এছাড়া অন্য কোনো সহযোগিতা ওই নারী চাইলে তাকে দেয়া হবে।