বীর মুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিকের ওপর হামলার প্রতিবাদে ঈশ্বরদীতে মুক্তিযোদ্ধা-জনতার সমাবেশ ও প্রতিবাদ জনসভা

আপডেট: ডিসেম্বর ৫, ২০২১, ৯:২৭ অপরাহ্ণ


ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি:


পাবনার ঈশ্বরদীতে বীর মুক্তিযোদ্ধা, প্রবীন সাংবাদিক ও কলাম লেখক ফজলুর রহমান ফান্টুর ওপর হামলা ও তাকে লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে এবং ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে মুক্তিযোদ্ধা-জনতার সমাবেশ ও প্রতিবাদ জনসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ঈশ্বরদীর পুরনো মোটর স্ট্যান্ডের মাহবুব আহমেদ খান স্মৃতিমঞ্চে গতকাল রোববার বিকেলে এই জনসভা অনুষ্ঠিত হয়। জনসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব নুরুজ্জামান বিশ্বাস। মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা চান্না মন্ডল এতে সভাপতিত্ব করেন।

জনসভায় বক্তব্য দেন ঈশ্বরদী ৗেরসভার মেয়র ইছাহক আলী মালিথা, সাবেক মেয়র আবুল কালাম আজাদ মিন্টু, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক, রফিকুল ইসলাম রফিক, সিরাজ উদ্দিন বিশ্বাস, মতিউর রহমান, নজরুল ইসলাম মিন্টু, সিনিয়র সাংবাদিক মোস্তাক আহমেদ কিরণ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম খান, পাকশী ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিন্টু, পৌর কাউন্সিলর ফিরোজা বেগম, ইঞ্জি. আবু জাহিদ উজ্জল, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কমান্ডের সভাপতি আব্দুর রহমান মিলন, আনোয়ারুল ইসলাম রতন প্রমুখ।

জনসভায় বক্তারা বলেন, শহরের দরিনারিচা থানা পাড়া এলাকার বাসিন্দা মো. রিপন ও আলতাব হোসেন পরিকল্পিতভাবে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিক-লেখক ফজলুর রহমান ফান্টুর নিজ বাড়িতে তার ওপর গত ২ ডিসেম্বর বিজয়ের মাসের শুরুতে এই হামলা চালিয়েছে। ফজলুর রহমান ফান্টু একজন প্রবীন বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাবেক পৌর কমিশনার, ঈশ্বরদী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক সহকারী কমান্ডার ও ঈশ্বরদী থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক চেতনায় ঈশ্বরদী’র ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক। তিনি নিয়মিত কলাম লেখক হিসেবে ঈশ্বরদীতে সুপরিচিত। তার মত একজন সজ্জন ও সর্বজন শ্রদ্ধেয় ব্যাক্তির ওপর এই হামলা চালানোর ঘটনা সাধারণ ঘটনা নয়, তাই এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার করা না হলে ঈশ্বরদীতে বড় ধরনের কর্মসুচী দিতে বাধ্য হবেন মুক্তিযোদ্ধা-জনতা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ