বৃষ্টির সময় ছেলেকে খুঁজতে বের হয়ে বাবাসহ ৯ জনের মৃত্যু

আপডেট: জুন ৬, ২০২০, ৯:২৪ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


৭ জেলায় বজ্রপাতে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে।
হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে ২ জন, শায়েস্তাগঞ্জে ১ জন, সুনামগঞ্জে ১ জন, ভোলায় ১ জন, মৌলভীবাজারের বড়লেখায় ২ জন ও কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর ও ভৈরবে ১ জন করে ২ জন এবং মানিকগঞ্জে ১ জন নিহত হয়েছেন। শনিবার (৬ জুন) পৃথকভাবে বজ্রপাতের এসব ঘটনা ঘটে।
হবিগঞ্জ
জেলার আজমিরীগঞ্জ ও শায়েস্তাগঞ্জে বজ্রপাতে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লক্সে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার (৬ জুন) সকালে এ বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন, আজমিরীগঞ্জ উপজেলার সদরের রনিয়া গ্রামের মালিক মিয়ার ছেলে মারফত আলী (১৭), একই গ্রামের আবেদ আলীর ছেলে রবিন মিয়া (১৭) ও শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নূরপুর ইউনিয়নের চন্ডিপুর গ্রামের আছকির মিয়া (৫০)।
শায়েস্তাগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক জানান, সকালে নিহত আছকির মিয়া তার ছেলেকে ডাকতে বাইরে বের হন। এ সময় বৃষ্টির সঙ্গে বজ্রপাত হলে তিনি আহত হন। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
সুনামগঞ্জ
সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার সেলবরষ ইউনিয়নের মনাই নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে মঞ্জু মিয়া (২২) নামের এক জেলে নিহত হয়েছেন। তিনি সেলবরষ ইউনিয়নের সলফ গ্রামের বাসিন্দা ফুল মিয়ার ছেলে।
শনিবার (৬ জুন) সকালে মনাই নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতের শিকার হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি।
ভোলা
ভোলায় আউস ধানের ক্ষেখতে কাজ করতে গিয়ে শনিবার সকালে বজ্রপাতে আব্দুল মালেক (৬০) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় মোহাম্মদ আলী (৪৫) ও মো. কাসেম (৫০) নামে দুই কৃষক আহত হয়েছেন।
নিহত আব্দুল মালেক ভোলা সদর উপজেলার ভেদুরিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের চর কালি গ্রামের মৃত মুকবুল আহম্মেদের ছেলে। এছাড়াও আহতরা একই গ্রামের বাসিন্দা। আহতদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
মৌলভীবাজার
জেলার বড়লেখা উপজেলায় বজ্রপাতে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সকালে পৃথক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন, উপজেলার নিজবাহাদুরপুর ইউপির গল্লাসাঙ্গন গ্রামে ইসহাক আলীর ছেলে আব্দুল মতিন (৫৫) এবং উপজেলার বর্ণি ইউনিয়নের কাজিরবন্দ গ্রামের মৃত রমিজ আলীর ছেলে রুবেল আহমদ (২৫)।

কিশোরগঞ্জ
জেলার কুলিয়ারচর ও ভৈরবে বজ্রপাতে দুইজন নিহত হয়েছেন। শনিবার সকালে এ দুটি ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন, কুলিয়ারচর উপজেলার ছয়সূতি ইউনিয়নের বড় ছয়সূতি গ্রামের হারুন খন্দকারের ছেলে কামরুল খন্দকার (১৪) এবং ভৈরবের সাদেকপুর ইউনিয়নের মেন্দিপুর গ্রামের আহসানউল্লাহ মিয়ার ছেলে সেলিম মিয়া (২৮)।
মানিকগঞ্জ
মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার মালঞ্চ গ্রামে বজ্রপাতে মো. জাহাঙ্গীর আলম নামে এক স্কুল শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন তার মাসহ চার জন।
শনিবার (৬ জুন) দুপুরে বাড়ির পাশে ধান মাড়াইকালে হঠাৎ বজ্রপাতে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।
মো. জাহাঙ্গীর আলম মানিকগঞ্জ পৌরসভার মালঞ্চ এলাকার জসিম উদ্দিনের ছেলে। তিনি মানিকগঞ্জ জেলা শহরের পোড়রা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন।
তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ, বাংলানিউজ