বেতার মাধ্যমেও হতে পারে উন্নয়ন

আপডেট: নভেম্বর ২০, ২০১৯, ১:০৬ পূর্বাহ্ণ

মামুনুর রশীদ


বাংলাদেশ একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশ। ১৯৭১ সালে ২৬ শে মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর স্বাধীনাতার ঘোষণাপত্র প্রথম পাঠ করেন চট্টগ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা এমএ হান্নান। যে স্বাধীনতার ঘোষণা চট্টগ্রাম কালুরঘাটে অবস্থিত স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে প্রচারিত হয়। যে ঘোষণা সাহস যুগিয়েছিল সাড়ে ৭ কোটি বাঙালিকে। ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় উদ্দীপনামূলক বিভিন্ন অনুষ্ঠান বঙ্গবন্ধুর বাণী, সংবাদ, নাটক, চরমপত্র, জল্লাদের দরবার, পিণ্ডির প্রলাপ মুক্তিযোদ্ধাদের মনোবল অটুট রাখতে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের বলিষ্ঠ অবদান সর্বজন বিদিত। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের গর্বিত উত্তরাধিকার বাংলাদেশ বেতার ।
আমি বাল্যকাল থেকে বাংলাদেশ বেতারসহ আন্তর্জাতিক বেতারগুলোর অনুষ্ঠান শুনি। ২০১০ সাল থেকে নিয়মিতভাবে বেতারে বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে চিঠি লিখি এবং উত্তর পাই। এছাড়াও সবুজ বাংলা কৃষি বিষয়ক অনুষ্ঠানে ফসলের রোগ বালাই দমনের জন্য পরামর্শ চাই এবং তা সঙ্গে সঙ্গে পেয়ে যাই। ফলে কৃষকের জমিতে অধিক ফসল উৎপাদন হয়। অনেক অজানা তথ্য বেতারের মাধ্যমে জানতে পারি। বেতার শুনে গ্রামের মানুষ সচেতন হচ্ছে এবং বাস্তব জীবনে জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি সম্পর্কে জানছে এবং স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা ব্যবহার করছে।
আমিও সিদ্ধান্ত নেই ‘মানব কল্যাণে কাজ করব।’ সেই লক্ষে শুরু হল দল গঠনের পালা। ৬ নভেম্বর ২০১২ সালে বেশ কয়েকজন বেতার শ্রোতা নিয়ে গঠন করি ‘সোনালী রেডিও ক্লাব’। যা স্বেচ্ছাসেবী ও বেতার শ্রোতা কøাব ভিত্তিক একটি সংগঠন এবং বাংলাদেশ বেতার কর্তৃক রেজিস্ট্রেশনপ্রাপ্ত। এখন নিয়মিতভাবে সামাজিক উন্নয়নমূলক কাজ করি। বেতারে সম্প্রচারিত সকল অনুষ্ঠান যেমন- সুখি পরিবার, জীবন জীবনের জন্য, ফিরে দেখা নিয়মিত ভাবে শুনি। সেগুলো নিয়ে সদস্যদের মধ্যে আলোচনা করি। সাধ্য অনুযায়ী সে কা গুলো নিজ গ্রামে বাস্তবায়ন করি। এ পর্যন্ত ২০ টি রেডিও সেট বিতরণ করেছি। বেশ কিছু বৃক্ষরোপণ করেছি, জীববৈচিত্র রক্ষা করি, জঙ্গি মাদক দুনীতি বিরোধী আলোচনা সভা, অধিকার নিয়ে গণনাটক পরিবেশন করি।
আমার সুপারিশে মো. মেহেদী হাসান মিঞা, চেয়ারম্যান ৬নং এনায়েতপুর ইউনিয়ন পরিষদ রহিমাপুর গ্রামে বয়স্ক ভাতা-২জন, প্রতিবন্ধী ভাতা-১ জন, গর্ভবতী ভাতা-১জন, ভিজিএফ ৩০ কেজি চাল-২জন, ভিজিএফ ১০ টাকা কেজি চাল -১০ জন, ভিজিএফ ১০ কেজি চাল-১০ জন এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য ২০ জনকে সেমাই, চিনি, আতব চাল প্রদান করেন। এ পর্যন্ত সর্বমোট ৪৬ জন দরিদ্র সরকারি সুবিধা ভোগ করছে।
এছাড়াও এলাকার কবি, মুক্তিযোদ্ধা, আদর্শ কৃষকের বেতারের সাক্ষাৎকার দেবার ব্যবস্থা করি। বেতার তাদের সাফল্যের কথা ছড়িয়ে দিচ্ছে দেশ দেশান্তরে। আর এভাবে বেতার এর মাধ্যমেও হতে পারে উন্নয়ন। বেতার হচ্ছে মানুষের প্রকৃত বন্ধু।