বৈরুতে বিস্ফোরণ: ৩০ ঘণ্টা পর একজনকে জীবিত উদ্ধার

আপডেট: আগস্ট ৭, ২০২০, ১:০২ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


উদ্ধারের পর আমিন আল-জাহিদকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট বিস্ফোরণে নিখোঁজ এক বন্দরকর্মীকে ৩০ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারের সময় তার পুরো শরীর রক্তমাখা ছিলো।
আমিন আল-জাহিদ নামে বৈরুত বন্দরের ওই কর্মীর ছবি তার স্বজনদের উদ্দেশ্য করে ইনস্টাগ্রামের একটি পেজে শেয়ার দেওয়ার পর পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়। ভয়াবহ ওই বিস্ফোরণে নিখোঁজ হন আল-জাহিদ। উদ্ধারকর্মীরা ভূমধ্যসাগরে ৩০ ঘণ্টা পর তাকে খুঁজে পান।
সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এ সংক্রান্ত এক ছবিতে দেখা যায়, জাহাজের ডেকে উদ্ধারকর্মীরা এক ব্যক্তিকে ঘিরে রেখেছেন, যার শরীর রক্তমাখা। তবে তিনি জীবিত।
দুবাইভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল-আরাবিয়ার এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, উদ্ধার করার পর ওই ব্যক্তিকে লেবাননের রাফিক ইউনির্ভাসিটি হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। তবে আল-জাহিদের পরিবারের সদস্যরা লেবাননের একটি টেলিভিশনকে বলেছেন, হাসপাতালে গেলেও তারা তাকে (আমিন আল-জাহিদ) খুঁজে পাননি। বর্তমান তার অবস্থা কী তা জানতে না পারায় উদ্বিগ্ন রয়েছেন।
গত মঙ্গলবার (০৪ আগস্ট) বিস্ফোরণের পর নিখোঁজ ব্যক্তিদের সন্ধানে ইনস্টাগ্রামে একটি পেজ চালু করা হয়। যার মাধ্যমে নিখোঁজ হওয়া আমিন আল-জাহিদের পরিচয় মিলেছে।
এদিক বিস্ফোরণের ঘটনার পর নিখোঁজ থাকা এক কিশোরীকে ২৪ ঘণ্টা পর উদ্ধারের খবর জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম। টর্চের আলোতে উদ্ধার কাজ করার সময় ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করেন উদ্ধারকর্মীরা।
শক্তিশালী ওই বিস্ফোরণে শেষ খবর পর্যন্ত ১৫৭ জন মারা গেছেন এবং আহত হয়েছেন ৫ হাজারের বেশি মানুষ।
তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি