বোনের মাথা কেটে তোলা হলো সেলফি!

আপডেট: ডিসেম্বর ৬, ২০২১, ৮:৪২ অপরাহ্ণ

অনার কিলিংয়ের শিকার হয়েছেন কীর্তি থোরে

সোনার দেশ ডেস্ক:


ভারতে শিউরে ওঠার মতো আরও একটি অনার কিলিং বা কথিত সম্মান রক্ষার্থে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। মহারাষ্ট্রের আওরঙ্গবাদ জেলায় রবিবার (৫ ডিসেম্বর) এই ঘটনা ঘটেছে। মায়ের সহায়তায় ১৯ বছর বয়সী গর্ভবতী বোনের মাথা কেটে নিয়ে বারান্দায় দোলাতে থাকে অপ্রাপ্তবয়স্ক তরুণ ভাইটি। তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বোনের কাটা মাথার সঙ্গে সেলফি তোলে সেই ভাই ও তার মা।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, ঘটনার সময়ে বাড়িতেই ছিলেন নিহত নারীর অসুস্থ স্বামী। তাকেও আক্রমণের চেষ্টা করা হয়। তবে তিনি পালিয়ে যেতে সক্ষম হন।
নিহত কীর্তি থোরে গত জুনে বাড়ি থেকে পালিয়ে যান। তখন থেকে তিনি নিজের স্বামীর সঙ্গে বসবাস করে আসছিলেন। গত সপ্তাহে তার সঙ্গে যোগাযোগ করে তার মা। ওই সময় তিনি মেয়ের বাড়িতেও যান। সপ্তাহ খানেক পর রবিবার ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে ফের মেয়ের বাড়িতে যান ওই মা।

অভিযুক্ত হত্যাকারী ভিরগাও থানায় আত্মসমর্পণ করেন। আর বর্তমানে তাকে গ্রেফতার রাখা হয়েছে।

ভিরগাও থানার সিনিয়র পুলিশ কর্মকর্তা কৈলাশ প্রজাপতি বলেন, ওই মা সপ্তাহখানেক আগে মেয়ের বাড়ি ঘরে যান। ৫ ডিসেম্বর তিনি ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে ফের যান। নিহতের বাড়ি একটি মাঠের মধ্যে। তিনি শ্বাশুড়ির সঙ্গে মাঠে কাজ করছিলেন। মা এবং ভাইকে দেখে কাজ ছেড়ে দৌড়ে তাদের কাছে যান। তাদের দুইজনকে পানি দেন আর চা বানাতে রান্নাঘরে যান। ওই সময় পেছন দিক দিয়ে ভাই তার ওপর আক্রমণ করে এবং মাথা কেটে নেয়।’

ওই পুলিশ কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘তার অসুস্থ স্বামী বাড়ির অন্য ঘরে শুয়ে ছিলেন। পাত্র পড়ার শব্দ শুনে তিনি রান্নাঘরে ছুটে যান। নারীর ভাই তাকেও হামলার চেষ্টা করে কিন্তু তিনি পালিয়ে যান। পরে বোনের কাটা মাথা নিয়ে বাড়ির বাইরে বেরিয়ে আসে ভাই। পরে থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করে।’
তথ্যসূত্র: বাংলাট্রিবিউন