বোলিংয়ে সুবিধা করতে পারে নি এইচপি দল

আপডেট: জুলাই ১৫, ২০১৭, ১২:১৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


অস্ট্রেলিয়া সফরে গিয়ে সাফল্যময় সব দিনই পার করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) দল। তবে শুক্রবারের দিনটা ভালো কাটেনি তাদের। নর্দার্ন টেরিটরি একাদশের বিপক্ষে তিন দিনের ম্যাচে বোলিংয়ে ব্যর্থতার একটি দিনে কেটেছে লিটন দাসদের। ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে গোটা দিন বোলিং করে উইকেট পেয়েছে মোটে তিনটি। জে ডিকম্যানের সেঞ্চুরিতে নর্দার্ন টেরিটরি একাদশ দ্বিতীয় দিন শেষ করেছে ৩ উইকেটে ৩১৬ রানে। এইচপি দল ৬ উইকেটে ৩১২ রানে তাদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করায় স্বাগতিকরা লিড নিয়েছে ৪ রানের।
প্রথম দিন শেষেই ইনিংস ঘোষণা করেছিল এইচপি দল। দ্বিতীয় দিনের সকালে তাই ব্যাট হাতে নামে নর্দার্ন টেরিটরি। শুরুটা হয় তাদের দারুণ। উদ্বোধনী জুটিতে রায়ান হ্যাকনি ও ম্যাকশেনি যোগ করেন ৮৪ রান। নাহিদুজ্জামানের বলে ম্যাকশেনি আউট হলে ভাঙে তাদের জুটি। রাব্বির হাতে ধরা পড়ার আগে ৮৩ বলে করেন তিনি ৪০ রান। তাকে ফেরানোর পর ঘুরে দাঁড়ানোর ভালো একটা সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন তানভীর হায়দার। এই লেগ স্পিনারের বলে ১৭ রানে বোল্ড হয়ে যান অ্যালেক্স গ্রেগরি। নর্দার্ন টেরিটরির স্কোর তখন ২ উইকেটে ১১৩।
এইচপি দলের উৎসব স্থায়ী হতে দেননি হ্যাকনি ও ডিকম্যান। দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে বাড়িয়ে নেন তারা দলের স্কোর। তৃতীয় উইকেটে ৯৮ রানের জুটি গড়ার পথে সেঞ্চুরির সুবাসও পাচ্ছিলেন হ্যাকনি। কিন্তু পারেননি তানভীরের দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে। এই স্পিনারের বলে এলবিডাব্লিউ হয়ে ফিরে যায় ৯৭ রান করে। ১৮৭ বলের ইনিংসটি এই ব্যাটসম্যান সাজিয়েছিলেন ৯ বাউন্ডারিতে।
হ্যাকনি সেঞ্চুরি মিস করলেও ভুল করেননি ডিকম্যান। অসাধারণ ব্যাটিংয়ে সেঞ্চুরি পূরণ করে দিন শেষ করেছেন তিনি ১০২ রানে অপরাজিত থেকে। ১৭০ বলের ইনিংসে ৯ চারের সঙ্গে হাঁকিয়েছেন একটি ছক্কা। তার সঙ্গে দিন শেষ করা ডোয়েল অপরাজিত আছেন ৪৬ রানে। বোলিংয়ে ব্যর্থতায় কাটানো দিনে এইচপি দলের সেরা সাফল্য এসেছে তানভীরের হাত ধরে। এই অলরাউন্ডার পেয়েছেন ২ উইকেট।-বাংলা ট্রিবিউন