বোল্ট যাওয়ার আগে এসে গেছে নতুন বোল্ট!

আপডেট: জুন ৩০, ২০১৭, ১২:৩১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


আর মাত্র এক মাস। তারপরই সমাপ্তি হবে একটি যুগের। লন্ডন বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপেই বিদায় বলে দেবেন উসাইন বোল্ট। রিও অলিম্পিকে নিজের অমরত্ব নিশ্চিত করে এমন ঘোষণাই দিয়ে রেখেছেন বোল্ট। হাহাকার শুরু হয়েছে তখন থেকেই। বোল্টই যদি চলে যান তবে অ্যাথলেটিকসের কী হবে? উত্তর দিয়েছেন বোল্ট নিজেই। তাঁর বিদায়ের আগেই নাকি বিশ্ব নতুন তারকা পেয়ে গেছে, ওয়েইড ফন নিকার্ক।
রিও অলিম্পিকের পর নিকার্কের নাম জানা থাকার কথা অনেকের। প্রথমে আলোচনায় এসেছিলেন তাঁর কোচের কারণে। ৭৪ বছর বয়সি বৃদ্ধা অ্যানস বোথাকে নিয়েই যে বিশ্বসেরাদের মঞ্চে হাজির হয়েছেন নিকার্ক! দক্ষিণ আফ্রিকান অ্যাথলেটদের বেশির ভাগ যাঁকে ডাকেন ‘ট্যানি (আন্টি) অ্যানস’ নামে। তবে রিও অলিম্পিকে আলোচনাটা পরে নিজের দিকেই টেনেছেন নিকার্ক। ৪০০ মিটারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন এই দক্ষিণ আফ্রিকান রিওতে বিশ্ব রেকর্ড গড়ে জিতেছেন অলিম্পিকের সোনা। সেটাও মাইকেল জনসনের রেকর্ড, যে রেকর্ড ১৭ বছর ধরে সবাইকে ফাঁকি দিয়ে গেছে। যে রেকর্ড আর কখনো ভাঙা হবে না বলে মনে হচ্ছিল। নিজের বিদায়ী মঞ্চ সাজানোর ফাঁকেই বোল্ট জানিয়ে দিলেন, অ্যাথলেটিকসের রাজত্ব ২৪ বছর বয়সি ফন নিকার্কই বুঝে নেবেন তাঁর কাছ থেকে।
পরশু চেক প্রজাতন্ত্রের অস্ট্রাভায় গোল্ডেন স্পাইক মিটে ১০০ মিটারে জিতেছেন বোল্ট। সময়টা ঠিক বোল্ট-সুলভ হয় নি, ১০.০৬ সেকেন্ড সময় লেগেছে। আর অস্ট্রাভাতেই গতির ঝড় তুলে ৩০০ মিটারে জনসনের আরেকটি বিশ্ব রেকর্ড দখল করেছেন নিকার্ক। ৩০.৮১ সেকেন্ডেই শেষ করেছেন ৩০০ মিটার। এই ইভেন্টে এত দিন জনসনের সেরা টাইমিং ছিল ৩০.৮৫ সেকেন্ড। এই টাইমিংও ছিল ১৭ বছর পুরোনো, ২০০০ সালের। রেকর্ড গড়ার পর উচ্ছ্বসিত নিকার্ক, ‘দু-দুবার জনসনের রেকর্ড ভেঙে দেওয়াটা সত্যিই একটা সম্মানের ব্যাপার। আশা করি, ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারব। একটু একটু করে উন্নতির দিকে এগিয়ে যাব।’
এত দিন ১০ সেকেন্ডের কমে ১০০ মিটার, ২০ সেকেন্ডের কমে ২০০ মিটার ও ৪৪ সেকেন্ডের কমে ৪০০ মিটার দৌড়ানো ইতিহাসের প্রথম অ্যাথলেট হয়েছিলেন নিকার্ক। সেই প্রোফাইলকে আরেকটু লম্বা করে নিলেন ৩১ সেকেন্ডের নিচে ৩০০ মিটার দৌড়ে! নিকার্কের এমন কীর্তির পর তাঁকে নিয়ে উচ্ছ্বসিত বোল্ট, ‘আমি মনে করি সত্যিই সে স্প্রিন্টার হয়ে উঠতে চায়। কারণ এ বছরেই এক শ মিটারে সে তার ব্যক্তিগত সেরা টাইমিং করেছে। সে দেখিয়েছে, চ্যালেঞ্জটা নেওয়ার জন্য সে প্রস্তুত। পা তার মাটিতেই আছে, কোনো অহমিকা নেই তার মধ্যে। মানুষ হিসেবেও সে খুব ভালো।’
মূলত ৪০০ মিটারে দৌড়ালেও ২০১৭ সালে ১০০ (৯.৯৪ সেকেন্ড) ও ২০০ মিটারে (১৯.৮৪ সেকেন্ড) নিজের সময় বেশ কমিয়ে এনেছেন নিকার্ক। এভাবে এগিয়ে যেতে থাকলে অ্যাথলেটিকসে বোল্টের শূন্যস্থান পূরণ করতেই পারেন এই দক্ষিণ আফ্রিকান। বোল্টও সে আশা করেন, ‘সে সবার কথা শোনা এবং ভালো হওয়ার চেষ্টা করে। যদি এটা করে যেতে পারে, সে ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডের রাজত্ব বুঝে নেবে।’-প্রথম আলো অনলাইন