ব্যাংকগুলোকে শিক্ষা খাতে ব্যয় বাড়ানোর নির্দেশ

আপডেট: ডিসেম্বর ১৯, ২০১৬, ১২:০৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



দেশের সব ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে শিক্ষা খাতে আরো ব্যয় বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির। তিনি বলেন, ‘মধ্য আয়ের দেশ হতে হলে যুগোপযোগী শিক্ষা দরকার। এ কারণে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে শিক্ষা খাতে আরো ব্যয় করতে হবে’।
গত শনিবার রাজধানীর ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স (আইডিবি) ‘এনসিসি ব্যাংক মেধাবৃত্তি-২০১৬’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে গভর্নর এ নির্দেশ দেন।
গভর্নর বলেন, ‘দেশের সব ব্যাংকই করপোরেট সোস্যাল রেসপন্সিবিলিটি (সিএসআর) খাতে ব্যয় করছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশ আছে প্রত্যেক আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সিএসআর খাতের মোট অর্থের ৩০ ভাগ শিক্ষা খাতে ব্যয় করতে হবে। ২০১৫ সালে সিএসআর খাতে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো ৫২৮ কোটি টাকা ব্যয় করে, এর মধ্যে ৩০ ভাগ অর্থাৎ ১৫৮ কোটি টাকা শিক্ষা খাতে ব্যয় করা হয়। যারা এ থেকে পিছিয়ে রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’
তিনি বলেন, ‘ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান শিক্ষা খাতে বেশি ব্যয় করতে পারে এজন্য কর রেয়াতের বিষয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সঙ্গে বসা হবে। এসব বিষয় নিয়ে সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গেও বৈঠক হয়েছে।’
এক শিক্ষার্থী একাধিক প্রতিষ্ঠান থেকে বৃত্তি পাচ্ছে, আবার অনেকে বৃত্তি পাওয়ার যোগ্য; কিন্তু তারা পাচ্ছে না। এসব বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে শিক্ষাবৃত্তি ডাটাবেজ করে বৃত্তি প্রদানের আহ্বান জানান ফজলে কবির।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এনসিসি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম হাফিজ আহমেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন  ব্যাংকের চেয়ারম্যান আবদুস সালাম, ভাইস চেয়ারম্যান এ এস এম মাঈনউদ্দিন মোনেম। অনুষ্ঠানে ৬৬ জনকে বৃত্তি প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে ব্যাংকটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, প্রত্যেকে শিক্ষার্থী বছরে ৩৬ হাজার টাকা করে বৃত্তি পাবে।