ব্যাটিংয়ে উজ্জ্বল জাকির-জাকের, আবু হায়দারের ৫ উইকেট

আপডেট: অক্টোবর ১৯, ২০১৯, ১:৩৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


দারুণ বোলিংয়ে ৫ উইকেট নিলেন আবু হায়দার। ব্যাটিংয়ে ভালো করা শহিদুল ইসলাম অবদান রাখলেন বোলিংয়েও। তাদের লড়াই যথেষ্ট ছিল না। জাকির হাসান, জাকের আলী, তৌফিক খান ও অলক কাপালীর চার ফিফটিতে ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে লিড নিয়েছে সিলেট।
জাতীয় লিগে দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচে বিনা উইকেটে ৯ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন শেষ করেছে মেট্রো। মোহাম্মদ নাঈম শেখ ৮ ও রাকিব আহমেদ ১ রানে ব্যাট করছেন। দলটি পিছিয়ে আছে ৬৪ রানে।
বগুড়ার শহিদ চান্দু স্টেডিয়ামে ১ উইকেটে ৫ রান নিয়ে দিন শুরু করে সিলেট। শুরুতেই নাইটওয়াচম্যাচ এনামুল জুনিয়রকে ফিরিয়ে দেন শহিদুল। পরের উইকেটের জন্য মেট্রোকে অপেক্ষা করতে হয়েছে লম্বা সময়।
আগের দিন প্রথম ওভারে মাঠ ছাড়া তৌফিক ক্রিজে ফিরে শতরানের জুটি গড়েন জাকিরের সঙ্গে। ওয়ানডে ঘরানার ব্যাটিংয়ে ৮ চার ও ২ ছক্কায় ৭৯ বলে ৬১ রান করা তৌফিককে কট বিহাইন্ড করে থামান আবু হায়দার।
চোট কাটিয়ে এই ম্যাচ দিয়ে ক্রিকেটে ফেলা লেগ স্পিনার আমিনুল ইসলাম বিপ্লব বোল্ড করে দেন জাকিরকে। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানের ১১৫ বলে খেলা ৭১ রানের ইনিংসে তিন ছক্কার পাশে চার চারটি।
ক্রিজে গিয়েই বোলারদের ওপর চড়াও হওয়া আফিফ হোসেন যেতে পারেননি বেশিদূর। অধিনায়ক কাপালীর সঙ্গে ৯৯ রানের জুটিতে দলকে লিড এনে দেন জাকের। ৫৪ রান করা কাপালীকে বিদায় করে সিলেটের প্রতিরোধ ভাঙেন শহিদুল। পরে বোল্ড করে থামান জাকেরকে। তরুণ এই কিপার-ব্যাটসম্যান ১২৭ বলে ৮ চার ও এক ছক্কায় করেন ৭১ রান।
শেষের দিকে দারুণ বোলিংয়ে সিলেটের ইনিংসের লেজ দ্রুত মুড়ে দেন আবু হায়দার। বাঁহাতি এই পেসার ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মতো নেন ৫ উইকেট। সিলেট শেষ ৪ উইকেট হারায় ৩৭ রানে।
৫৫ রানে ৫ উইকেট নিয়ে মেট্রোর সেরা বোলার আবু হায়দার। শহিদুল ৩ উইকেট নেন ৪৮ রানে।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
ঢাকা মেট্রো ১ম ইনিংস: ২৪৬
সিলেট ১ম ইনিংস: (আগের দিন ৫/১) ৮৪.৫ ওভারে ৩১৯ (তৌফিক ৬১, এনামুল জুনিয়র ৬, জাকির ৭১, কাপালী ৫৪, আফিফ ২৩, জাকের ৭১, রাহাতুল ১, আবু জায়েদ ০, রেজাউর ১৯*, ইমরান ০; আবু হায়দার ১৬.৫-৪-৫৫-৫, শহিদুল ১৬-৫-৪৮-৩, মানিক ১০-২-৩০-০, সানি ২১-৫-৫৩-০, মাহমুদউল্লাহ ২-১-২১-০, আমিনুল ১৩-০-৭৯-১, আল আমিন জুনিয়র ৬-০-২৩-১)।
ঢাকা মেট্রো ২য় ইনিংস: ৭ ওভারে ৯/০ (নাঈম ৮*, রাকিন ১*; আবু জায়েদ ৩-০-৫-০, রেজাউর ২-২-০-০, আফিফ ১-০-৪-০, রাহাতুল ১-১-০-০)