‘ব্যাটে-বলে প্রথম ১০ ওভারেই হেরেছি আমরা’

আপডেট: এপ্রিল ২, ২০১৭, ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



হল না স্বপ্নপূরণ। অধরাই রয়ে গেল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথমবারের মতো সিরিজ জয়ের স্বপ্ন। তাও আবার শ্রীলঙ্কার মাটিতেই। শনিবার কলম্বোতে সিরিজ নির্ধারণী তৃতীয় ওয়ানডেতে ৭০ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। তাতে ১-১ ব্যবধানে ড্র হয়েছে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ। সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব মাঠে বাংলাদেশের বোলারদের শুরুটা ভালো ছিল না। প্রথম ১০ ওভারে কোন উইকেট না হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ৭৬ রান তুলে ফেলেছিল লঙ্কানরা। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশকে ছুঁড়ে দিয়েছিল ২৮১ রানের টার্গেট। আধুনিক ক্রিকেটে খুব বড় লক্ষ্য নয়। কিন্তু জবাব দিতে নেমে ১১ রানেই ৩ উইকেট খুইয়ে ফেলে বাংলাদেশ। এরপর সৌম্য-সাকিব আশা জাগালেও বাংলাদেশের ইনিংস থেমেছে ২১০ রানেই। ম্যাচশেষে টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা বললেন, ব্যাটিং বোলিং দুই ক্ষেত্রেই বাজে শুরুটাই ম্যাচ থেকে ছিটকে দিয়েছে বাংলাদেশকে।
ম্যাচ পরবর্তী পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এদিন মাশরাফি গিয়েছিলেন হেরে যাওয়া দলের অধিনায়ক হিসেবে। সেখানেই জানিয়েছেন হারার কারণ, ‘শ্রীলঙ্কার ইনিংসের শুরুতে আমাদের বোলাররা ভালো বল করতে পারেনি। ১০ ওভারেই ৭৬ রান দিয়েছে বোলাররা। একইভাবে লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে আমাদের প্রথম ১০ ওভারের ব্যাটিংও আশানুরুপ ছিল না।’
সকালে টসে জিতে শ্রীলঙ্কাকে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন মাশরাফি। জানিয়েছিলেন বড় লক্ষ্য তাড়া করতে প্রস্তুত বাংলাদেশ। কিন্তু ব্যর্থ হয়েছেন উপরের সারির ব্যাটাররা। প্রথম সাত ব্যাটসম্যানের মাত্র দুজন ছুঁয়েছেন দুই অঙ্ক। সৌম্য করেছেন ৩৮ রান। সাকিবের ব্যাট থেকে এসেছে ৫৪ রান। শেষদিকে তাই মেহেদী হাসান মিরাজের অভিষেক হাফসেঞ্চুরি কেবল হারের ব্যবধানই কমিয়েছে। আগে ব্যাটিং নিলেই ভালো হতো কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানিয়েছেন, ‘না, ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্তটা ভুল ছিল না। ২৮১ রানের লক্ষ্যটা খুব বড় না। আমরা ইনিংসের শুরুতে দ্রুত ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিলাম। যা আমাদের ভুগিয়েছে।’
বাংলাদেশের পরের সিরিজটাও দেশের বাইরে। আগামী মে মাসে। আয়ারল্যান্ডের মাটিতে। ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশের আরেক প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড। লঙ্কা সফর শেষে মাশরাফির ভাবনায় এখন পরবর্তী মিশন, ‘আমাদের সবাই মিলে বসতে হবে। এই সিরিজের খুঁটিনাটি নিয়ে আলোচনা করতে হবে। সামনে আয়ারল্যান্ড সিরিজ।’

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ