ব্রিটিশ ও পাকিস্তান আমলের ৩৬৯টি আইন চালু আছে দেশে

আপডেট: নভেম্বর ৩, ২০২২, ৯:০৮ অপরাহ্ণ

জাতীয় সংসদে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক

সোনার দেশ ডেস্ক:


ব্রিটিশ ভারত ও পাকিস্তান আমলের ৩৬৯টি আইন বাংলাদেশে চালু রয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারি দলের এমপি এম আব্দুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী এ তথ্য জানান। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠকের শুরুতে প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠিত হয়।

বর্তমানে দেশে সাবেক ব্রিটিশ ও পাকিস্তান আমলে প্রণীত আইন চালু আছে উল্লেখ করে আনিসুল হক বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণার আগে তদানিন্তন পূর্ব পাকিস্তানে প্রচলিত ব্রিটিশ ভারত ও পাকিস্তান আমলে প্রণীত বর্তমানে চালু আইনের সংখ্য্যা ৩৬৯টি। সংবিধানের ১৪৯ অনুচ্ছেদ দ্বারা প্রচলিত সব আইনের কার্যকারিতা অব্যাহত রাখা হয়। ১৯৭৩ সালের Bangladesh Laws (Revision and Declaration) Act, 1973, ১৯৭৩ প্রণয়নের মাধ্যমে স্বাধীনতা পূর্ব আইনগুলোকে প্রয়োজনীয় সংশোধন ও অভিযোজন করে বহাল রাখা হয়েছে।

সংসদে মন্ত্রীর দেওয়া তথ্য থেকে জানা যায়, বাংলাদেশে প্রচলিত ব্রিটিশ ভারতের আইনের সংখ্যা ২২২টি এবং পাকিস্তান আমলের আইনের সংখ্যা ১৪৭টি। ব্রিটিশ ভারতের প্রথম আইন হচ্ছে ১৭৯৯ সালে প্রণীত The Wills and Intestacy Regulation পাকিস্তান আমলে প্রণীত শেষ আইন হচ্ছে

The Government and Local Authority Lands and Buildings (Recovery of Possession) Ordinance 1970|

সরকারি দলের মামুনুর রশীদ কিরণের প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রামে হাইকোর্ট বিভাগের সার্কিট বেঞ্চ স্থাপনের বিষয়টি সরকারের সক্রিয় বিবেচনায় রয়েছে।

সরকারি কর্মচারীদের বেতন-ভাতা অনলাইনে দেওয়া হবে
গণফোরামের মোকাব্বির খানের প্রশ্নের জবাবে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, ২০১৫ সালের বেতন ও ভাতাদি আদেশ অনুযায়ী সরকারি কর্মচারীরা শ্রেণি বিভাজনের পরিবর্তে বেতন স্কেলের গ্রেডভিত্তিক পরিচিত হবেন। সরকারের বিদ্যমান আইন, বিধি ও আদেশ নির্দশনায় শ্রেণি উল্লেখ থাকায় শ্রেণির পরিবর্তে গ্রেড উল্লেখ করে ওইসব আইন, বিধি, আদেশ ও নির্দেশনা সংশোধনের লক্ষ্যে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে ইতোমধ্যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

শহিদুল ইসলাম বকুলের প্রশ্নের জবাবে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী জানান, সরকারি চাকরিজীবীদের সার্ভিস বুক এবং পেনশন সংক্রান্ত সব কার্যক্রম ডিজিটালভিত্তিক করার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। অনলাইনে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা, পেনশন পরিশোধের কার্যক্রম চলমান আছে।
তথ্যসূত্র: বাংলাট্রিবিউন