বড়াইগ্রামে করোনায় আক্রান্ত দুই জন অবাধে ঘুরছেন, ঢাকায় কাজ করেছেন

আপডেট: জুন ৪, ২০২০, ১:৩০ অপরাহ্ণ

বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি:


নাটোরের বড়াইগ্রামে দুই জনের করোনা ভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে পজিটিভ এসেছে। তবে তারা নমুনা দিয়ে ঢাকায় নিজ কর্মস্থলে যোগদান করেছেন। এর আগে নমুনা দিয়ে নিজ গৃহ, প্রতিবেশী, গ্রামে, বাজারে জনসমাগমে অবাধে মিশেছে। যার ফলে তাদের ভাইরাস কমিউনিটিতে ছড়িয়ে পড়েছে বলে আশঙ্কা রয়েছে। তাদের বাড়ি বড়াইগ্রাম উপজেলার বড়াইগ্রাম সদর ও রাজাপুর এলাকায়। তাদের নমুনা পজিটিভের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাটোরের সিভিল সার্জন ডা. কাজী মিজানুর রহমান।
নাটোরের সিভিল সার্জন অফিস সূত্র থেকে জানা যায়, আক্রান্তদের একজন চাকরি করেন ঢাকার গাজীপুরে মন্ডল গ্রুপে। অপরজন চাকরি করেন অ্যাপোলো হসপিটালে। তারা দুজনেই ইদের দু’দিন আগে বাড়িতে এসেছিলেন। বাড়িতে আসার পরে সর্দি দেখা দিলে করোনার নমুনা প্রদান করেন। বুধবার (৩ জুন) রাতে তাদের ফলাফলে পজিটিভ ধরা পড়লো। এরই মধ্যে তারা দুজনই ইদ শেষে ফিরে গেছেন ঢাকায় নিজ কর্মস্থলে। ইতোমধ্যে ফলাফল তাদের জানানো হয়েছে। তারা ইদে যেহেতু বাড়িতে এসেছিলেন এবং বাড়ির সদস্যসহ প্রতিবেশীদের সঙ্গে মিশেছিলেন তাই সে সমস্ত বাড়িগুলো লকডাউন করার জন্য প্রশাসনের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে বলে জানান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. পরিতোষ কুমার। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ জন। এর মধ্যে ইতোমধ্যে ১১ জন সুস্থ হয়েছেন। অপর একজন নমুনা দেয়ার পর রেজাল্ট আসার আগেই মৃত্যুবরণ করেছেন। বর্তমানে ৪৪ জন হোম আইসোলেশনে রয়েছেন। করোনা পজিটিভ বিষয়টি সিভিল সার্জন অফিসে প্রথমে ফোনে ও পরে রাত সাড়ে ১০টার দিকে ই-মেইলে নিশ্চিত করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা পরীক্ষাগার ইউনিট।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ