বড়াল নদীর বুকে চাষ হচ্ছে ধান

আপডেট: মার্চ ২, ২০১৭, ১২:৩০ পূর্বাহ্ণ

আমানুল হক আমান, বাঘা



খর¯্রােতা বড়াল নদী পানি শূন্য হয়ে পড়েছে। নদীর বুকে এখন চাষ হচ্ছে ধান। দীর্ঘদিন থেকে নদী খনন না করায় নাব্যতা কমে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।
বর্তমানে বড়াল নদীর শাখা নদীগুলোতে পানি না থাকায় বুক জুড়ে চাষ হচ্ছে বিভিন্ন ফসল। সর্বত্র সবুজ ধানে ছেয়ে গেছে ফসলের খেত। আবার কোথাও পানি শূন্য হয়ে গেছে। নদীর পানি শুকিয়ে যাওয়ায় স্থানীয় জেলেরা জীবিকা নির্বাহে মাছ ধরতে পারছে না। ফলে জেলেদের পরিবারে নেমে এসেছে অন্ধকার। নদী প্রবাহমান কমে যাওয়ায় শাখা নদী ও বিভিন্ন খালে চাষ হচ্ছে ইরি-বোরো।
শালাইনগর গ্রামের কৃষক ময়েন উদ্দিন জানান, নদী খননের উদ্যোগ নিলে শুকনো মৌসুমে নদীতে পানি ধরে রেখে ফসলি জমিতে সহজে ইরি-বেরো ধানের আবাদ করা সম্ভব হতো। এছাড়া নদীতে পানি থাকলে স্থানীয় জেলেরা মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করতে পারতো। নদীর কিছু অংশ ও শাখা খালে কিছু খনন করা হলেও তা কোন কাজে আসছে না। এলাকাবাসী বাঁচাতে নদী খনন ও নিয়মিত তদারকির দাবি জানিয়েছেন।
এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাবিনা বেগম জানান, নদীতে পানি না থাকায় জেলেরা জীবিকা নির্বাহ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। তবে কিছু চাষিরা ধান চাষ করে উপকৃত হচ্ছে। তবে নদী খননের বিষয়ে ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ