ভরণপোষণ আইনে ছেলের বিরুদ্ধে মায়ের মামলা

আপডেট: মার্চ ৫, ২০২১, ৫:৫৪ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


কোনো মা তার সন্তানের অমঙ্গল চান না। কিন্তু এর ব্যতিক্রম ঘটনা ঘটেছে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার চকবাউসা গ্রামে। জোরপূর্বক জমি লিখে নেয়ার চেষ্টা ও বেধড়ক মারধরের ঘটনায় সন্তানের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন এক ভুক্তভোগী মা।
বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) বাঘার উপজেলার চকবাউসা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওই গ্রামের প্রয়াত মোমিন উদ্দিনের স্ত্রী হাওয়া বেগম (৬৫) তার ছেলে মানিক উদ্দিনের (৩৫) বিরুদ্ধে মামলাটি করেছেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম।
তিনি জানান, ভরণ-পোষণ আইনে বাঘা থানায় হাওয়া বেগম তার ছেলে মানিক উদ্দিনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে অভিযুক্ত আসামিকে আটক করা হয়েছে।
ঘটনা সম্পর্কে জানা গেছে, মানিক তার মাকে ভরণপোষণ দিতেন না, উল্টো জমি লিখে না দেয়ায় মাকে বেধড়ক মারপিট করতেন। ছেলের মারধরের কারণে গত বৃহস্পতিবার আহত হন হাওয়া বেগম। শারীরিক ও মানসিক কষ্ট সহ্য করতে না পেরে নিরুপায় হয়ে তিনি মামলাটি করেন।
পুলিশ জানায়, হাওয়া বেগম ১৫ বছর আগে স্বামীকে হারিয়েছেন। স্বামী মৃত্যুর সময় দুই ছেলে এবং দুই মেয়েসহ ২ একর ৭৩ শতাংশ জমি রেখে যান। পরবর্তীতে মেয়েদের দেন। বর্তমানে এই জমি জোরপূর্বক ভোগদখল করছেন তার বড় ছেলে মানিক ।
তারপরও মানিক মায়ের নামে থাকা ওই সম্পত্তি জোরপূর্বক লিখে নিতে চান। কিন্তু মা হাওয়া বেগম জমি লিখে না দেয়ায় বৃহস্পতিবার সকালে তাকে বেধড়ক পেটান। এতে আহত হন হাওয়া বেগম। পরবর্তীতে নিরুপায় হয়ে মা তার মেয়ে ও জামাইকে সঙ্গে করে বাঘা থানায় ভরণপোষণ আইনে তার ছেলের নামে একটি মামলা দায়ের করেন।
এ বিষয়ে বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, মামলায় অভিযুক্ত আসামি মানিককে শুক্রবার সকালে আটক করা হয়েছে। আজ তাকে আতালতে সোপর্দ করা হবে। এ ধরনের মামলা বাঘা থানায় এই প্রথম দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান ওসি।