রাবির ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় উপস্থিতির হার ৮২.১২ শতাংশ

আপডেট: মার্চ ৫, ২০২৪, ১১:০৫ অপরাহ্ণ


রাবি প্রতিনিধি:রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতক শ্রেণীতে প্রথম বর্ষ ‘সি’ ইউনিটের (বিজ্ঞান) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (৫ মার্চ) সকাল ৯টায় গ্রুপ-১ এর ভর্তি পরীক্ষার মধ্য দিয়ে শুরু হয়ে চারটি গ্রুপে এই ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শেষ হয় বিকেল সাড়ে ৪টায়। ভর্তি পরীক্ষায় কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। ‘সি’ ইউনিটে মোট ৭৬ হাজার ৩৫৪ জন আবেদনকারীর মধ্যে পরীক্ষায় উপস্থিত ছিলো ৮২.১২ শতাংশ শিক্ষার্থী।

‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় উপস্থিতি বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, ‘সি’ ইউনিটের চারটি গ্রুপের মধ্যে সকাল ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত গ্রুপ-১ এর ভর্তি পরীক্ষায় উপস্থিতি ছিল ৮২.০৩ শতাংশ, বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত গ্রুপ-২ এর ভর্তি পরীক্ষায় ৮১.৯০ শতাংশ, দুপুর ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত গ্রুপ-৩ এর পরীক্ষায় ৮২.০৭ শতাংশ এবং বিকেল ৩.৩০টা থেকে ৪.৩০ টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত গ্রুপ-৪ পরীক্ষায় উপস্থিতি ছিল ৮২.৪৭ শতাংশ।

ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষে এদিন সকাল সাড়ে ৯টায় ড. কুদরাত-এ-খুদা একাডেমিক ভবনের সামনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রাবি উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার ভর্তি পরীক্ষার মোট আবেদন সংখ্যা এবং পরীক্ষার নিয়মাবলি সম্পর্কে সংবাদকর্মীদের অবহিত করেন।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়টির উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক সুলতান-উল-ইসলাম, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক হুমায়ুন কবীর, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক তারিকুল হাসান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক অবায়দুর রহমান প্রামাণিক, ‘সি’ ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক অধ্যাপক নাসিমা আখতার, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক জাহাঙ্গীর আলম সাউদ, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পাণ্ডেসহ অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে ভর্তি পরীক্ষার দ্বিতীয়দিনে বুধবার ‘এ’ ইউনিটের (মানবিক) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। চারটি গ্রুপে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য আবেদন করেছেন মোট ৭৪ হাজার ৭৮৫জন শিক্ষার্থী। এবারের ১০০ নম্বরের এক ঘণ্টাব্যাপী ভর্তি-পরীক্ষায় ৮০টি বহুনির্বাচনী প্রশ্ন থাকছে। প্রতিটি প্রশ্নের মান থাকবে ১.২৫। আর প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ করে কাটা যাবে। পরীক্ষায় নূন্যতম পাশ নম্বর থাকবে ৪০। ভর্তি পরীক্ষায় ৩ টি ইউনিট মিলে বিশেষ কোটাসহ মোট আসন রয়েছে চার হাজার ৪৩৮টি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ