ভারতের তালিকায়ও মোস্ট ওয়ানটেড ।। গুলশান হামলার পরিকল্পনাকারী সোহেল মাহফুজ চার সহযোগীসহ গ্রেফতার

আপডেট: জুলাই ৯, ২০১৭, ১:৪২ পূর্বাহ্ণ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ অফিস


জঙ্গি নেতা সোহেল মাহফুজের গ্রেফতারকৃত তিন সহযোগী-সোনার দেশ

রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিজানে হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী ও নব্য জেএমবির উত্তরাঞ্চলীয় কমান্ডার শীর্ষ জঙ্গি নেতা সোহেল মাহফুজ ওরফে হাতকাটা সোহেল (৩৫) সহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গোপন বৈঠক করার সময় গত শুক্রবার গভীর রাতে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার পুশকুনি এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতারকৃত অন্য তিনজন হলেন- নব্য জেএমবির আইটি বিশেষজ্ঞ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার পার্বতীপুর গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে হাফিজুর রহমান হাসান (২৮), জেএমবির অন্যতম সমন্বয়ক চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার চরমোহনপুর এলাকার ইয়াসিন আলীর ছেলে জামাল (৩৪) ও সামরিক শাখার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সদস্য চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার বিশ্বনাথপুর কাটিয়াপাড়া গ্রামের এসলামের ছেলে জুয়েল (২৬)। অভিযানে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পুলিশকে সহায়তা করেছে পুলিশের বিশেষায়িত টিম কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট ও বগুড়া জেলা পুলিশ।
পুলিশ জানায়, কানসাট-চৌডালা সড়কের পুশকুনি এলাকার ফজলুর রহমানের আমবাগানে গোপন বৈঠক চলছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার রাত ২টার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুলিশ সুপার টিএম মোজাহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে সেখানে অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় পুলিশের তালিকায় থাকা মোস্ট ওয়ানটেড জঙ্গি নেতা গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরায় জঙ্গি হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী সোহেল মাহফুজসহ (৩৫) চার জনকে গ্রেফতার করা হয়। অভিযানের সময় কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট ও বগুড়া জেলা পুলিশের সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন।
অভিযানে নেতৃত্ব দেয়া চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুলিশ সুপার টিএম মোজাহিদুল ইসলাম জানান, শীর্ষ জঙ্গি নেতা সোহেল মাহফুজ চাঁপাইনবাবগঞ্জসহ উত্তরাঞ্চলে নব্য জেএবিকে সুসংগঠিত করে আসছিলো। চাঁপাইনবাবগঞ্জে তার বিরুদ্ধে জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগে দুইটি মামলা রয়েছে। এছাড়া গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরায় জঙ্গি হামলাসহ রাজশাহীর গোদাগাড়ী ও তানোর, দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট, নাটোর সদর ও চট্টগ্রামের মিরেরশরাই উপজেলার জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে আটটি মামলা রয়েছে।
পুলিশ সুপার আরো জানান, সোহেলকে ধরতে দীর্ঘদিন ধরে গোয়েন্দা নজরদারি চালানো হচ্ছিলো। গোয়েন্দা তথ্যর ভিত্তিতে এর আগেও ১০ থেকে ১২ বার জেলার বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালানো হয়। কিন্তু দ্রুত জায়গা পরিবর্তন করায় তাকে আটক করা যায় নি।
চাঁপাইনবাবগঞ্জে এই জঙ্গি নেতা কাদের আশ্রয় প্রশ্রয়ে ছিলো, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে পুলিশ সুপার টিএম মোজাহিদুল ইসলাম জানান, গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরায় জঙ্গি হামলার মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য জঙ্গি নেতা সোহেল মাহফুজকে গ্রেফতারের পর কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ভোররাতেই সোহেলকে নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হন কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সদস্যরা। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষ হলে তাকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের দুইটি মামলায় রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। তখন এই বিষয়গুলো জানা যাবে বলে জানান তিনি। এছাড়া সোহেলের বাকি তিন সহযোগিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ ও গোমস্তাপুর উপজেলার জঙ্গি সম্পৃক্ততার মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ