ভারতের পরিবর্তে বাংলাদেশ না হয় শ্রীলঙ্কাকে চায় পাকিস্তান

আপডেট: মার্চ ৭, ২০১৭, ১২:২২ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


২০০৭ সাল থেকে পাকিস্তানের বিপক্ষে পূর্ণাঙ্গ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলে না ভারত। এরই মধ্যে নিয়মিত সিরিজ আয়োজনের বিষয়ে দু’দেশ সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষরও করেছিল; কিন্তু ভারতের পক্ষ থেকে একের পর এক উপেক্ষার শিকার হয়ে ভবিষ্যতে আর কোনো সিরিজ নিয়ে দ্বিধায় রয়েছে পাকিস্তান। সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী আগামী ডিসেম্বরেই পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলার কথা ভারতের; কিন্তু বিসিসিআইয়ের টালবাহানা দেখে নিরাপ হয়ে গেছে পিসিবি। যে কারণে ওই সময়টায় বাংলাদেশের বিপক্ষে একটি সিরিজ আয়োজন করতে চায় তারা। বাংলাদেশকে না পেলে বিকল্প হিসেবে শ্রীলঙ্কাকেও ভেবে রেখেছে পাকিস্তান।
বাংলাদেশকে লাহোরে আমন্ত্রণ জানাতে চায় পিসিবি- কয়েকদিন আগেই পাকিস্তানের কয়েকটি মেইনস্ট্রিম মিডিয়ায় ফলাও করে প্রকাশ হয়েছিল এ খবর। যদিও বিসিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, পিসিবি আনুষ্ঠানিকভাবে এ ব্যাপারে কোনো প্রস্তাব পাঠায়নি। বিসিবির প্রতিক্রিয়া শুনেই সম্ভবত সুর পাল্টে ফেলেছে পাকিস্তান। এখন তারা জানাচ্ছে, আগামী ডিসেম্বরে ভারতের বিপক্ষে সিরিজ নিয়ে তারা আর আশাবাদী নয়। সুতরাং, বাংলাদেশ কিংবা শ্রীলঙ্কাকে নিয়ে সিরিজ আয়োজন করতে চায় তারা।
পিএসএলের ফাইনাল শেষে লাহোরে সংবাদ সম্মেলনে পিসিবি কর্মকর্তা এবং পিএসএল চেয়ারম্যান নাজম শেঠি এক প্রতিক্রিয়ায় এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, ‘আমরা আশাবাদী, বছরের শেষে শীতকালে, বাংলাদেশ কিংবা শ্রীলংকাকে নিয়ে একটি সিরিজ আয়োজন করতে পারবো।’
দু’দেশের ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে খুব শিগগিরই আলোচনা শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন নাজম শেঠি। তিনি বলেন, ‘আমরা খুব দ্রুতই বাংলাদেশ এবং শ্রীলংকান ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করবো। লাহোরে পিএসএলের দারুণ একটি ফাইনাল আয়োজন করার পর আমরা আরও বেশি আত্মবিশ্বাসী।’
সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে পিসিবির এক শীর্ষ কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন যে, পাকিস্তান আর ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড তাদের দেয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষা করবে- এই আশা আঁকড়ে ধরে রাখতে চায় না। সেই সূত্রটি পিটিআইকে বলেছে, ‘এই বছরও অবস্থার কোনো উন্নতি হবে বলে আমরা আর আশা করছি না। এ কারণে পরিকল্পনায় রয়েছে, এ নিয়ে আমাদের আইনজীবীদের নিয়ে আইনি প্রক্রিয়ায় যাবো। কারণ, তারা অনেকবার আমাদেরকে প্রতিশ্রুতি দিয়ে তা রক্ষা করেনি।’
পিসিবি সব সময়ই দাবি করে আসছিল, ২০০৭ সাল থেকে ভারতের বিপক্ষে অন্তত দুটি হোম সিরিজ আয়োজন করতে না পারায় ২০০ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছে।’ নাজম শেঠি বিশ্বাস করেন, লাহোরে পিএসএলের ফাইনাল দিয়ে পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের দরজা খুলতে সক্ষম হয়েছেন তারা।-জাগোনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ