ভারতের পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের ঘোষণা

আপডেট: ডিসেম্বর ১১, ২০২৩, ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ

হঠাৎ পেঁয়াজের বাজার অস্থির

শুক্রবার সকালে যে পেঁয়াজ ১০০ থেকে ১২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হয়েছে, সন্ধ্যা পেরুতেই তার দাম দুইশো টাকা ছাড়িয়ে গেল। হঠাৎ কী এমন হলো যে, পেঁয়াজের দামের এই উলল্ফন হলো। মাত্র কয়েকণ্টার মধ্যে পেঁয়াজের ঘাটতি হয়ে গেল। ঘাটতি থেকে পেঁয়াজের সঙ্কট তৈরি হয়ে গেল? ঘটনা আর কিছুই নয়Ñভারত আগামী মার্চ মাস পর্যন্ত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে। এটাই মূলত বাংলাদেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম বাড়ার কারণ! বিবিসি বাংলার এক প্রতিবেদনে এই পরিস্থিতিকে বলা হয়েছে- ‘এমন খবর আসা মাত্র রীতিমতো যেন দেশের বাজার জুড়ে প্যানিক ছড়িয়ে পড়ে।’

স্বাভাবিকভাবেই শনিবার বাজারে পেঁয়াজ কিনতে গিয়ে ক্রেতাদের চক্ষু চড়কগাছ। তারা ক্ষুব্ধ, হতাশ আর অসহায়ত্ব প্রকাশ করতে থাকেন। অনেকেই পেঁয়াজের এই মূল্যবৃদ্ধিকে ‘নৈরাজ্য’ বলে মন্তব্য করেছেন এবং সংশ্লিষ্টদের মধ্যে বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর পদক্ষেপ দাবি করেছেন।

দেশের বাজার ব্যবস্থাকে প্রভাবিত করার জন্য সিন্ডিকেশন যে কীরূপ ভয়াবহ মাত্রায় বিরাজ করছে তা হঠাৎ পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধিতে সেটা পরিস্কার বুঝা যায়। আর এই সিন্ডিকেট ভাঙ্গতে সরকারও যে গলদঘর্ম সেটাও বুঝা যায়। কেননা সিন্ডিকেশনের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের কোনোভাবেই চিহ্নিত করা সম্ভব হচ্ছে না। ওরা নিজেদের খেয়াল-খুশিমত নিত্যপণ্যের বাজারে দাম বাড়ায়, কৃত্রিম সঙ্কটের সৃষ্টি করে এবং বাজার ব্যবস্থাকে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সৃষ্টি করে। এর ফল ভোগ করতে হয় ক্রেতা সাধারণকে।

ভারত সরকার পেঁয়াজ রপ্তানির ঘোষণা দেয়ার সাথে সাথে দেশে পেঁয়াজের ঘাটতি পড়ে গেল এটা পাগল ছাড়া আর কাউকে বিশ্বাস করানো যাবে না। ব্যবসায়ীরা কেতাদের পাগলই জ্ঞান করছে আর মূল্যবৃদ্ধির জন্য এক ব্যবসায়ী অপর ব্যবসায়ীর ওপর দোষ চাপাচ্ছে। সিন্ডিকেশনের মাধ্যমে সেটাই করা হলোÑ ঘোষণার মাত্র কয়েকঘণ্টার মধ্যে পেঁয়াজের দাম বেড়ে প্রায় দ্বিগুণ হয়ে গেল। এর চেয়ে অস্বাভাবিক আর অমানবিক কী হতে পারে!

নিত্যপণ্য নিয়ে বারবার এই সিন্ডিকেশনের দৌরাত্ম্য ক্রমেই ভয়ানক হয়ে উঠছে। এবং এটা হচ্ছে এই কারণে যে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া যাচ্ছে না। এই ব্যবস্থা যদি নেয়া যায় তাহলে আগামী দিনগুলোতে পরিস্থিতির আরো অবনিত হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়। তাই সময় থাকতেই সিন্ডিকেশনের বিরুদ্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার এখনই সময়।

Exit mobile version