ভারতের মহারাষ্ট্রে ৫ মাসে আত্মহত্যা ৪৬১ জন কৃষকের

আপডেট: জুন ১৪, ২০২৪, ৮:৫৫ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক:


কৃষকদের স্বার্থরক্ষায় সরকার যতই গালভরা প্রতিশ্রুতি দিক না কেন, ভালো নেই দেশের অন্নদাতারা। রিপোর্ট বলছে, দড়ির ফাঁসেই যেন রেহাই খুঁজছেন দেশের কৃষকরা। দেশজুড়ে ক্রমাগত বেড়েই চলেছে কৃষক আত্মহত্যার ঘটনা। এর মধ্যে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা মহারাষ্ট্রে। সরকারি পরিসংখ্যান বলছে, মহারাষ্ট্রের পশ্চিম বিদর্ভ অঞ্চলে গত ৫ মাসে আত্মহত্যা করেছেন ৪৬১ জন কৃষক। পাশাপাশি অমরাবতী জেলায় ৫ মাসে এই আত্মহত্যার সংখ্যাটা ১৪৩।

মহারাষ্ট্রের সরকারি রিপোর্ট বলছে, গত ৫ মাসে অমরাবতীতে ১৪৩ জন আত্মহত্যা করেছেন। এছাড়া অকোলা জেলায় সংখ্যাটা ৮২, যবনমালে ১৩২, বুলদানায় ৮৩, ওয়াসিম জেলায় ২১ জন আত্মহত্যা করেছেন গত ৫ মাসে। সরকারিভাবে দাবি করা হচ্ছে, মূলত প্রাকৃতিক দুর্যোগ, অসময়ের বৃষ্টি এবং ফসল উৎপাদনে অনুপযোগী বন্ধ্যা জমিই এর মূল কারণ। তবে কৃষকদের তরফে জানা যাচ্ছে, এ সবের চেয়ে আরও বড় কারণ হল ফসলের পর্যাপ্ত মূল্য না পাওয়া এবং কৃষি ক্ষেত্রে সরকারের ভুল নীতি। এর জেরেই দেনার দায়ে আত্মহত্যা করছেন কৃষকরা।

এদিকে আরও জানা যাচ্ছে, যে রিপোর্ট সামনে এসেছে তা শুধুমাত্র মহারাষ্ট্রের পশ্চিম বিদর্ভ অঞ্চলের জেলাগুলির জানুয়ারি থেকে মে মাসের রিপোর্ট। গোটা মহারাষ্ট্র ধরলে সংখ্যাটা যে আরও ভয়ংকর তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এখনও পর্যন্ত পূর্ব বিদর্ভ, মারাঠওয়াড়া-সহ গোটা মহারাষ্ট্রের রিপোর্ট আসতে বাকি রয়েছে। কৃষকদের আত্মহত্যা রুখতে সরকারের তরফে ইতোমধ্যেই চালু করা হয়েছে হেল্পলাইন, ও ইমেল আইডি। যা হল, ৯৯৯৯৬৬৬৫৫৫, ০২২-২৫৫২১১১১ ও [email protected]। তবে কৃষকদের মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতিতে হেল্পলাইন চালু হলেও কৃষকদের অভিযোগ সরকার মূল সমস্যাকে গুরুত্ব দিচ্ছে না।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন অনলাইন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ