ভারতের সঙ্গে ত্রিদেশিয় সিরিজে খেলবে না বাংলাদেশ!

আপডেট: জুলাই ৩, ২০১৭, ১২:৫৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


চলতি বছরের অক্টোবরের শেষে একটি ত্রিদেশিয় সিরিজ খেলার পরিকল্পনা তৈরি হচ্ছিলো। যেখানে ভারতের সাথে বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের খেলার কথা চলছিল। তবে ঠিক ওই সময়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় থাকবে বাংলাদেশ দল। এরপর দেশে ফিরে অংশ নেবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) পঞ্চম আসরে। তাই ত্রিদেশীয় এ সিরিজে খেলার প্রস্তাবে সাড়া দিতে পারছে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। আইসিসি সভা থেকে ফিরে রোববার এমনটাই জানালেন বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন।
রোববার ধানমন্ডিতে নিজের অফিসিয়াল কার্যালয়ে প্রস্তাবিত ত্রিদেশীয় সিরিজ সম্পর্কে পাপন বলেন, ‘আমাদের কাছে একটা প্রস্তাব এসেছিল। দূর্ভাগ্যবশত কোনোভাবেই এটা আমরা মেলাতে পারছি না। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ২৮ অক্টোবর আমাদের দল দেশে ফিরবে। ওরা চাচ্ছে ২৮ তারিখের আগে। দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের পর বিপিএল, ওটা বদল করলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে সমস্যায় পড়তে হবে। সবকিছু মিলিয়ে এটা উপযুক্ত নয়। এখন পর্যন্ত তাই ধরে নিচ্ছি ওটা সম্ভব নয়। যদি না ওরা তারিখ পরিবর্তন না করে।’
তবে ভারতের সাথে খেলার জন্য মুখিয়ে আছে বাংলাদেশ। টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেকের পর মাত্র একবার ভারতের আতিথেয়তা পেয়েছে বাংলাদেশ। তাই চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে মাত্র একটি টেস্ট খেলে টাইগাররা। তাই দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলার জন্য চলতি আইসিসি সভার ফাঁকেও তাদের সঙ্গে কথা বলেছে বিসিবি। ভারত ও ইংল্যান্ডের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ আয়োজনের সম্ভবনা নিয়ে পাপন বলেন, ‘সুযোগ আছে। কিছু কিছু এখনো চূড়ান্ত, আবার কিছু কিছু এখনো চূড়ান্ত হয়নি। কিছু কিছু জায়গা থেকে আমাদের কাছে প্রস্তাবও এসেছে। সবকিছু মিলিয়ে আমরা চিন্তা করছি। কিন্তু কোন কিছুই এখনো চূড়ান্ত নয়।’
এদিকে আগামী আগস্টের মাঝামাঝি সময়ে বাংলাদেশে আসার কথা অস্ট্রেলিয়ার। তবে বেতন কাঠামো নিয়ে বিদ্রোহের কারণে চাকরি নেই এখন অসি ক্রিকেটাররা। তাই অনিশ্চয়তায় পড়েছে এ সিরিজ। তবে এখনই বিকল্প কিছু ভাবতে রাজি নয় বাংলাদেশ। পাপনের ভাষায়, ‘ওরা যদি আমাদেরকে কিছু না বলে তাহলে তো আমরা ধরেই নেবো ওরা আসবে। এখন ওরা কিছু বলার আগে আমরা যদি কোনো দলের বিপক্ষে সিরিজ ঠিক করে ফেলি। এরপর ওরা আসলে তখন কি হবে? এজন্য আগে কিছু বলা যাবে না। ওরা অফিসিয়ালি কিছু না বলা পর্যন্ত কিছু করা যাবে না!’

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ