ভারতের সঙ্গে ফের বাণিজ্যে আগ্রহী! পাকিস্তানের সুর নরম সাড়ে চার বছর পরে

আপডেট: মার্চ ২৫, ২০২৪, ১২:৫৯ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


প্রায় পাঁচ বছর ধরে বন্ধ ভারত-পাকিস্তানের বাণিজ্য। তবে নতুন সরকার গঠনের পরে পালটে যেতে পারে সেই ছবি। পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইশাক দারের কথায়, ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য শুরু করার প্রস্তাব নিয়ে ভাবনাচিন্তা করছে সরকার। হয়তো আবারও আগের মতোই বাণিজ্য চালাতে পারেন দু’দেশের ব্যবসায়ীরা।

২০১৯ সালের আগস্ট মাসে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা লোপ করে কেন্দ্র। ৩৭০ ধারা বিলোপের সিদ্ধান্তের তুমুল বিরোধিতা করে পাকিস্তান। এই পদক্ষেপের প্রতিবাদ হিসাবেই ভারতের সঙ্গে সমস্ত বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করে ইসলামাবাদ। তারপর প্রায় সাড়ে চার বছর কেটে গিয়েছে। তার মধ্যে সংঘর্ষবিরতি পুনর্নবীকরণ করে দুই দেশ। কিন্তু দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যে সমস্যার মেঘ কাটেনি। এমন পরিস্থিতিতে গত দু’বছর ধরে কার্যত ধসে পড়েছে পাকিস্তানের অর্থনীতি। হু হু করে বেড়েছে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম। দেনার বোঝায় ধুঁকছে ভারতের পড়শি দেশটি।

প্রবল দুরাবস্থার মধ্যে একাধিকবার পাকিস্তানের ব্যবসায়ীদের তপক্ষে দাবি ওঠে, ভারতের সঙ্গে স্বাভাবিক বাণিজ্য শুরু হোক। তাঁদের মত ছিল, ভারত এবং চিনের মধ্যেও সীমান্ত নিয়ে টানাপোড়েন রয়েছে। তা সত্ত্বেও চিন থেকে অনেক পণ্য আমদানি করে ভারত। তাহলে ভারত-পাকিস্তানের ব্যবসায়িক সম্পর্ক থেমে থাকবে কেন?

তবে ছবিটা এবার পালটে যাবে বলেই আশাবাদী পাকিস্তান সরকার। গত মাসে নির্বাচনের পর নতুন পাক প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিয়েছেন শাহবাজ শরিফ। তাঁকে সোশাল মিডিয়ায় অভিনন্দন জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কয়েকদিন পরে সেই বার্তার জবাব আসে শাহবাজের পক্ষ থেকেও। সৌহার্দ্যের পরিস্থিতিতেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বলেন, ‘পাকিস্তানের ব্যবসায়ীরা চান যেন ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক ঠিক হয়ে যায়। এই বিষয়টা নিয়ে আমরা ভালোভাবে চিন্তাভাবনা করব।’ তবে ভারতের সঙ্গে এখনও এই প্রসঙ্গে পাকিস্তানের কোনো আলোচনা হয়নি।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন