ভারতে এবার আতঙ্ক লাম্পি ভাইরাসের! রাজস্থানে চার হাজারেরও বেশি গবাদি পশুর মৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্য

আপডেট: আগস্ট ৫, ২০২২, ৫:০৭ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


অতিমারী আবহেই গোটা বিশ্বের মতো ভারতেও আতঙ্ক ছড়াচ্ছে মাঙ্কি ভাইরাস। এই অবস্থায় এবার ভয় ধরাতে শুরু করল আরও এক ভাইরাস, যার নাম লাম্পি ভাইরাস। যার হানায় চার হাজারেরও বেশি গবাদি পশুর মৃত্যু হয়েছে রাজস্থানে। সব মিলিয়ে আক্রান্ত ৯৪ হাজারেরও বেশি গবাদি পশু।

ইতোমধ্যেই রাজস্থানের অশোক গেহলট জানিয়েছেন, রাজ্য সরকার আপ্রাণ চেষ্টা করছে এই ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে। সেই সঙ্গে গবাদি পশুর পালকদের কাছে আরজি জানিয়েছেন, অসুখের উপসর্গ দেখা দিলেই যত দ্রুত সম্ভব স্থানীয় পশু চিকিৎসালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করতে। জানা গিয়েছে, ১৬টি জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে সংক্রমণ।

বিশেষত গঙ্গানগর, বার্মের, যোধপুর ও জলোরে পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ। এখনও পর্যন্ত ৯৪ হাজার ৩৫৮টি পশু লিম্পি চর্মরোগে আক্রান্ত বলে জানা গিয়েছে। যাদের মধ্যে ৭৪ হাজার পশুর চিকিৎসা করা সম্ভব হয়েছে।

কীভাবে ছড়ায় এই ভাইরাস? মূলত রক্তখেকো পতঙ্গ, বিশেষ কিছু প্রজাতির মাছি এই অসুখ ছড়ায়। পাশাপাশি দূষিত জল ও খাদ্য থেকেও লিম্পি ভাইরাস ছড়ায়।

এই অসুখে আক্রান্ত হলে যে উপসর্গগুলি দেখা যায় সেগুলি হল জ্বর, চোখ ও নাক দিয়ে নাগাড়ে জল পড়া, খেতে কষ্ট ও সারা গায়ে ফোসকার মতো দাগ। অসুখটির জন্ম আফ্রিকায়। তবে ভারতে তা এসেছে পাকিস্তান থেকে। গত এপ্রিল মাসে প্রথমবার এই ভাইরাসের সংক্রমণের খবর মিলেছিল।

কেন্দ্র ইতিমধ্যেই রাজস্থানে বিশেষ পরিদর্শনকারী দল পাঠিয়েছে। কোনওভাবেই যাতে সংক্রমণ মাথাচাড়া না দিতে পারে তা নিশ্চিত করাই আপাতত প্রাথমিক লক্ষ্য।

এদিকে এই অসুখের প্রাদুর্ভাবের কারণে গুজরাটের দুধ উৎপাদনও বিপুল হারে কমেছে। দিনে ৫০ হাজার লিটার দুধ কম মিলছে। যদিও তা গুজরাটের দৈনিক দুধ উৎপাদনের মাত্র ০.২৫ শতাংশ, তবুও বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখছেন ব্যবসায়ীরা। দ্রæত গবাদি পশুদের টিকা দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন