ভারতে কোভিড-১৯ হাসপাতালে আগুন, ৮ রোগীর মৃত্যু

আপডেট: August 6, 2020, 1:10 pm

সোনার দেশ ডেস্ক:


ভারতের গুজরাটে কোভিড-১৯ চিকিৎসায় নিয়োজিত একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকা-ে ৮ রোগীর মৃত্যু হয়েছে বলে কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন।
আহমেদাবাদের নাভরাংপুর এলাকার শ্রেই হাসপাতালে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে আগুন লাগে। তাৎক্ষণিকভাবে দমকল বাহিনীর ৮টি ফায়ার ইঞ্জিন ও ১০টি অ্যাম্বুলেন্স ঘটনাস্থলে ছুটে যায়।
তিন নারীসহ ৮ নিহতের সবাই হাসপাতালটির নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন ছিলেন বলে এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।
আগুন লাগার সময় ৫০ শয্যার হাসপাতালটিতে ৪৫ জনের মতো রোগী ভর্তি ছিলেন। যে ৮ রোগীর মৃত্যু হয়েছে তারা বাদে বাকিদের উদ্ধার করে সর্দার বল্লবভাই প্যাটেল ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্স অ্যান্ড রিসার্চ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে বলে এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন।
অগ্নিকা-ে নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।
“আহমেদাবাদের হাসপাতালে আগুনের ঘটনায় কষ্ট লাগছে। নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। আহতরা দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুন। পরিস্থিতি নিয়ে গুজরাটের মুথ্যমন্ত্রী ও আহমেদাবাদের মেয়রের সঙ্গে কথা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তদের প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহায়তা করা হবে,” টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে বলেছেন তিনি।
এনডিটিভি জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকালেও ঘটনাস্থলে থাকা দমকল কর্মীদের উদ্ধার তৎপরতা চালাতে দেখা গেছে; হাসপাতালটির বাইরে দেখা গেছে রোগীদের উদ্বিগ্ন স্বজনদের ভিড়।
প্রাথমিকভাবে ‘বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট’ থেকেই আগুনের সূত্রপাত বলে ধারণা করা হচ্ছে।
ভারতের যে ১০টি রাজ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ সবচেয়ে, গুজরাট তার অন্যতম। রাজ্যটিতে এখন পর্যন্ত ৬৫ হাজারের বেশি মানুষের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এদের প্রায় ৪৮ হাজারই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে বলে জানিয়েছে ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।
জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের ড্যাশবোর্ড অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ভারতে শনাক্ত কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা ১৯ লাখ ৬৪ হাজার ছাড়িয়ে গেছে, মৃত্যু হয়েছে ৪০ হাজার ৬৯৯ জনের।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ