ভারতে পাওয়া করোনার স্ট্রেনই উদ্বেগজনক, আশঙ্কা প্রকাশ করল WHO

আপডেট: জুন ২, ২০২১, ৩:১২ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ভারতে আবিষ্কৃত COVID-19 এর একটি ভ্যারিয়েন্টই এখন আশঙ্কার কারণ। সম্প্রতি এমন তথ্যই প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)| । এই স্ট্রেনের নামকরণ করা হয়েছে ডেল্টা। ভারতে খুঁজে পাওয়া SARS-CoV-2 ভাইরাসের বাকি ২টি স্ট্রেন এখন নিম্নমুখী।
ভারতে যে করোনা মাত্রাতিরিক্তভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে তার জন্য SARS-CoV-2 ভাইরাসের B.1.617 স্ট্রেনই দায়ী। এটি ট্রিপল মিউট্যান্ট ভ্যারিয়েন্ট। ভাইরাসের এই ভ্যারিয়েন্ট তিনটি পর্যায়ে বংশবিস্তার করে। গত মাসে রাষ্ট্রসংঘের স্বাস্থ্য বিভাগের তরফ থেকে সমস্ত স্ট্রেনকে ‘উদ্বেগজনক’ হিসেবে বর্ণনা করা হয়। কিন্তু মঙ্গলবার তার মধ্যে মাত্র একটিকে এই তকমা দেওয়া হয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফে মহামারী সংক্রান্ত সাপ্তাহিক আপডেট দেওয়ার সময় জানানো হয়েছে, এটা স্পষ্ট যে বৃহত্তর জনসংখ্যার স্বাস্থ্য নিয়ে যে ঝুঁকি, তা বর্তমানে B.1.617.2 র সঙ্গে জড়িত। অন্য স্ট্রেনের সংক্রমণের হার লক্ষ্য করা গেলেও তার পরিমাণ কম। B.1.617.2 ভ্যারিয়েন্টই সবচেয়ে উদ্বেগজনক। ভাইরাসের আসল রূপের থেকে এটি আরও মারাত্মক। কারণ এটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এর মৃত্যুর হারও বেশি। এমনকী ভ্যাকসিন নেওয়ার পরও এর দ্বারা সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
২০২০ সালের অক্টোবর মাসে COVID-19 এর নতুন ভ্যারিয়েন্টB.1.617.2 এর সন্ধান মেলে ভারতে। এই ভ্যারিয়েন্টকে WHO‘ডেল্টা’ নামে অভিহিত করেছে। এবার থেকে এই স্ট্রেনকে ডেল্টা বলা হবে। অন্যদিকে ভারতেই খুঁজে পাওয়া COVID-19 ৯ এর অন্য একটি ভ্যারিয়েন্ট B.1.617.1 কে অভিহিত করা হয়েছে ‘কাপ্পা’ নামে। ২০২০ সালে সেপ্টেম্বরে যুক্তরাজ্যে যে স্ট্রেনের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে সেটিকে ‘আলফা’ নামকরণ করা হয়েছে। ‘বিটা’ নামকরণ করা হয়েছে ২০২০ সালের মে মাসে দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া COVID-19 ভ্যারিয়েন্টের। নভেম্বর মাসে ব্রাজিলে সন্ধান পাওয়া COVID-19 ভ্যারিয়েন্টের নাম রাখা হয়েছে ‘গামা’।
SARS-CoV-2 এর B.1.617 ভ্যারিয়েন্ট ৫৩ টি অঞ্চলে সরকারিভাবে এবং আরও ৭টি জায়গায় বেসরকারিভাবে পাওয়া গিয়েছে। এটি আগের চেয়ে অনেক দ্রুত সংক্রমণযোগ্য বলে প্রমাণিত হয়েছে। রোগের তীব্রতা এবং সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়ে এখনও গবেষণা করছেন বিজ্ঞানীরা।
তথ্যসূত্র: kolkata24x7