ভারতে বেসরকারি টিভি চ্যানেল সম্প্রচারে ফি কমানোর আশ্বাস

আপডেট: নভেম্বর ৬, ২০১৯, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


তথ্য মন্ত্রণালয়ে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি বাংলাদেশ ও ভারতের তথ্যমন্ত্রী-সংগৃহীত

পশ্চিম বাংলায় বাংলাদেশের বেসরকারি টিভি চ্যানেল সম্প্রচারে ভারতের তথ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে ফি কমানোর আশ্বাস পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) তথ্য মন্ত্রণালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।
সফররত ভারতের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী শ্রী প্রকাশ জাভাদকার তার কার্যালয়ে এসে সৌজন্য সাক্ষাতের পর গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন তারা। এসময় তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘পশ্চিম বাংলায় বেসরকারি টিভিগুলো দেখা যায় না। সেখানে বাধাটা হচ্ছে পশ্চিম বাংলার ক্যাবল অপারেটরদের পক্ষ থেকে উচ্চ ফি দাবি করা হয়। এই বিষয়টি আলোচনা করেছি। কারণ, সারা পৃথিবী এখন গ্লোবাল ভিলেজ। এখন অ্যাপসের মাধ্যমে বা ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমেও আপনি টিভির অনুষ্ঠান দেখতে পারেন। সুতরাং কিছু আটকে রাখতে চাইলেও রাখা যায় না। ভারতের মন্ত্রী আশ্বাস দিয়েছেন এ বিষয়টি তিনি গভীরভাবে দেখবেন, যাতে আমাদের বেসরকারি চ্যানেলগুলোও সেখানে দেখা যায়।’
তথ্যমন্ত্রী জানান, বিটিভি পুরো ভারতে বিনামূল্যে দেখা যাচ্ছে। তবে আমাদের বেসরকারি চ্যানেলগুলো পশ্চিম বাংলায় দেখা যায় না। ভারত সরকারের পক্ষ থেকে বাংলাদেশের বেসরকারি টিভিগুলো ভারতে প্রদর্শনে কোনও বিধি-নিষেধ নেই। সে কারণে ত্রিপুরাতে সেগুলো দেখা যায়। আমি নিজে সেগুলো দেখেছি। কিন্তু পশ্চিম বাংলায় সেগুলো দেখা যায় না।
সাংবাদিকদের তথ্যমন্ত্রী বলেন, ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী শ্রী প্রকাশ জাভাদকার মূলত জলবায়ু বিষয়ক একটি অনুষ্ঠানে এসেছেন। তিনি ভারতের শুধু তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী নন, একজন জলবায়ুমন্ত্রীও। আজ আমরা অনেকগুলো বিষয়ে আলোচনা করেছি। ভারত-বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ওপর একটি ছবি বানানোর কাজ শুরু হয়েছে। সেটির অগ্রগতির সম্পর্কে আমরা আলোচনা করেছি। এছাড়া ভারতের সঙ্গে একটি চুক্তি আছে তারা আমাদের মুক্তিযুদ্ধের ওপরে চলচ্চিত্র বা প্রামাণ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে আগ্রহ দেখিয়েছে। সে বিষয়ে আমরা আলোচনা করেছি।’
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি বিশেষ করে এফডিসির অধীনে বঙ্গবন্ধু ফিল্ম সিটি নির্মাণ করছি, সেটা কীভাবে আরও সুন্দর পরিবেশ করা যায়, সেজন্য তাদের সহযোগিতা চেয়েছি। ভারত আমাদের সর্বাত্মকভাবে সহযোগিতা করবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন।’
ভারতের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী শ্রী প্রকাশ জাভাদকার বলেন, আমাদের মধ্যে অনেক বিষয় নিয়ে ভালো আলোচনা হয়েছে। যেমন সংস্কৃতি, রাজনৈতিক, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিজ, বাংলাদেশ টেলিভিশন নিয়ে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ টেলিভিশন ভারতে সম্প্রচার শুরু করেছে। তাই বাংলাদেশেও ভারতের টেলিভিশন ডিডি ইন্ডিয়া রিলে করে করে দেখানো শুরু করেছে। এ বিষয়ে মন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা হয়েছে।
জাভাদকার বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে দুইটি চলচ্চিত্র বানাচ্ছি। আমি সকলকে ভারতে আমন্ত্রণ জানিয়েছি। আমাদের চলচ্চিত্র দিন দিন উন্নতি করছে। পুনেতে ভালো চলচ্চিত্র শিল্প প্রতিষ্ঠানসহ ভালো আর্কাইভ আছে। দেখার আমন্ত্রণ জানিয়েছি।