ভারতে রাজ্যসভার ৩৩ শতাংশ সাংসদের নামে ফৌজদারি মামলা:

আপডেট: মার্চ ২, ২০২৪, ১:১১ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :এক প্রতিবেদন মোতাবেক, রাজ্যসভার ৩৩ শতাংশ সংসদ সদস্যের নামে ফৌজদারি মামলা রয়েছে। তাঁদের সম্পত্তির পরিমাণ হার মানায় ধনকুবেরকেও!
সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন উপস্থাপন করেছে স্বেচ্ছাসেবি সংস্থা ‘অ্যাসোসিয়েশন ফর ডেমোক্র্যাটিক রিফর্মস’ (এডিআর)। এতে বলা হয়েছে, সংসদের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভার সংসদ সদস্যদের ৩৩ শতাংশের বিরুদ্ধে রয়েছে ফৌজদারি মামলা।

তাঁদের মিলিত সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকা! ন্যাশনাল ইলেকশন ওয়াচ (এনইডব্লু) এবং এডিআর-এর যৌথ সমীক্ষা মোতাবেক, রাজ্যসভার দু’জন সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ ধারা বা খুনের মামলা চলমান। চার সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে ৩০৭ ধারা বা হত্যা চেষ্টার ধারায় মামলা আছে। মোট ২২৫ জন রাজ্যসভার সংসদ সদস্যের ওপর এই সমীক্ষা চালানো হয়েছিল।

ফৌজদারি মামলার ক্ষেত্রে তালিকায় কোন দল কোথায় রয়েছে তাও উল্লেখ করা হয়েছে এডিআর প্রতিবেদনে। দেখা যাচ্ছে. সংখ্যাতত্ত্বের হিসাবে দাগি সংসদ সদস্যদের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি বিজেপিতে। রাজ্যসভার দলের ৯০ সংসদ সদস্যের মধ্যে ২৩ শতাংশের মানে ফৌজদারি মামলা রয়েছে। তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে কংগ্রেস। হাত শিবিরের ২৮ জন সংসদ সদস্য ‘দাগি’। তৃতীয় স্থানে রয়েছে তৃণমূল। ঘাসফুল শিবিরের ১৩ সংসদ সদস্যের মধ্যে ৫ জনের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা রয়েছে, যা প্রায় ৩৮ শতাংশ।

এডিআর-এর প্রতিবেদন মোতাবেক, এই দাগি সংসদ সদস্যদের সম্পত্তির পরিমাণ হার মানায় ধনীদেরও! বর্তমানে রাজ্যসভার ২২৫ জন সংসদ সদস্যের মিলিত সম্পত্তি ১৯ হাজার ৬০২ কোটি টাকা। অর্থাৎ, এই হিসাবে প্রত্যেক রাজ্যসভার সদস্যের গড় সম্পদের পরিমাণ ৮৭ কোটি ১২ লক্ষ টাকা। সবমিলিয়ে, রাজনীতিতে ‘দাগি’ সংসদ সদস্যদের সংখ্যা রীতিমতো চমকে দেয়ার মতো।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন অনলাইন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ