ভারতে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত দেড় লক্ষেরও বেশি, প্রাণ হারালেন ৮৩৯ জন

আপডেট: এপ্রিল ১১, ২০২১, ১২:৩২ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


দেশে করোনার উদ্বেগজনক পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আহ্বানে আজ থেকে টিকা উৎসব পালন করা হচ্ছে। ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত যত বেশি সংখ্যক টিকাকরণ করাই এই উৎসবের লক্ষ্য। আর এরই মাঝে সাস্থ্যমন্ত্রকের করোনা রিপোর্টে আরও গভীর হল কপালের ভাঁজ। দেশে প্রথমবার একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়াল দেড় লক্ষের গণ্ডি। লাফিয়ে বাড়ল অ্যাকটিভ কেস।
রোববার স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১ লক্ষ ৫২ হাজার ৮৭৯ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এর বেশিরভাগটাই যে মহারাষ্ট্রের সেটা বলাই বাহুল্য। মহারাষ্ট্র ছাড়াও পাঞ্জাব, কর্ণাটক, ছত্তিশগড়, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশের মতো রাজ্যগুলিও রীতিমতো উদ্বেগ বাড়াচ্ছে। দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৩৩ লক্ষ ৫৮ হাজার ৮০৫ জন। এদিকে একদিনে এই মারণ ভাইরাসে প্রাণ হারালেন ৮৩৯ জন। দেশে মোট মৃতের সংখ্যা ১ লক্ষ ৬৯ হাজার ২৭৫ জন। এই সংখ্যা আগের দিনের থেকে অনেকটাই বেশি। লাফিয়ে বাড়ছে অ্যাকটিভ কেসও। বর্তমানে করোনার চিকিৎসাধীন ১১ লক্ষ ৮ হাজার ৮৭ জন।
পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনামুক্ত হয়েছেন ৯০ হাজার ৫৮৪ জন। এখনও পর্যন্ত দেশে ১ কোটি ২০ লক্ষ ৮১ হাজার ৪৪৩ করোনা থেকে মুক্ত হয়েছেন। টিকা পেয়েছেন ১০ কোটি ১৫ লক্ষেরও বেশি মানুষ। টিকাকরণের পাশাপাশি চলছে টেস্টিংও। ওঈগজ-এর রিপোর্ট বলছে, গতকাল ১৪ লক্ষ ১২ হাজার ৪৭টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। তবে শুধু বাড়তে থাকা সংক্রমণই নয়, চিন্তা বাড়াচ্ছে করোনার নয়া স্ট্রেনও।
এদিন টিকা উৎসবের শুরুতেই টুইট করে দেশবাসীকে চারটি বিষয় মাথায় রাখার বার্তা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি লেখেন, যাঁদের টিকার প্রয়োজন তাঁদের সাহায্য় করুন। কোভিড আক্রান্ত যাতে চিকিৎসা পায়, তা নিশ্চিত করুন। নিজে মাস্ক পরুন এবং কেউ করোনা আক্রান্ত হলে ওই এলাকায় মাইক্রো-কনটেনমেন্ট জোন তৈরি করুন।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ