ভীমরুল ঠেকাতে পতঙ্গ নিচ্ছে নিউ জিল্যান্ড

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২১, ১২:৫৮ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিশ্বের সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ভীমরুল থাকা দেশগুলোর একটি নিউ জিল্যান্ড। তবে এবার সেগুলোকে নিয়ন্ত্রণের উদ্যোগ নিয়েছে দেশটি। ইউরোপ থেকে দুইটি পতঙ্গ নিতে চাইছে তারা। এজন্য ইতোমধ্যে দেশটির পরিবেশ সুরক্ষা কর্তৃপক্ষ (ইপিএ) হোভার মাছি ও ওয়াসপ-নেস্ট বিটল নামের দুইটি পতঙ্গকে সবুজ সংকেত দিয়েছে। এসব পতঙ্গগুলো ভীমরুলের বাসাকে লক্ষ্যবস্তু বানিয়ে তা নিয়ন্ত্রণ করে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।
নিউ জিল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চল জুড়ে ভীমরুলের প্রাদুর্ভাব বেড়েছে। ১৯৪০এর দশকে নিউ জিল্যান্ডে আসে জার্মান ভীমরুল। এছাড়া ১৯৭০ এর দশকে সাধারণ ভীমরুলও পৌঁছায়। কিন্তু বর্তমানে এগুলো ব্যাপক পরিমাণে বেড়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার।
দক্ষিণ দ্বীপের তাসমান জেলা কাউন্সিল হোভার মাছি এবং ভীমরুল নিয়ন্ত্রক বিটল পোকা মোতায়েনের অনুমতি চেয়ে আবেদন করেছে। আবেদনে বলা হয়েছে, সেখানকার প্রতি হেক্টরে গড়ে ৩০টি করে ভীমরুলের বাসা রয়েছে। দুনিয়ার মধ্যে এটাই ভীমরুলের সবচেয়ে ঘনবসতি।
স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে ভীমরুলের আধিক্যের কারণে বিঘ্নিত হচ্ছে স্থানীয় বাস্তুতন্ত্র। এসব ভীমরুল মৌমাছিসহ অন্যান্য উপকারী পতঙ্গ মেরে ফেলছে। এর কারণে প্রতিবছর দেশটির ১৩ কোটি ৩০ লাখ ডলারের ক্ষতি হচ্ছে।
নিউ জিল্যান্ডের পরিবেশ সুরক্ষা কর্তৃপক্ষ বলছে, ভীমরুল নিয়ন্ত্রণে নিরাপদ বিবেচনায় ইউরোপ থেকে দুটি পতঙ্গ আনা হচ্ছে। এর কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে পতঙ্গ দুটি কেবলমাত্র ভীমরুলকে আক্রমণ করে থাকে।
তথ্যসূত্র: বাংলাট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ