ভোগান্তি এড়াতে অটোমেশনের আওতায় আসছে রাবির সনদ শাখা

আপডেট: মে ১৯, ২০২২, ১০:২৯ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক:


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সনদ শাখা নথিপত্রের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি শাখা। যেখানে সনদ তুলতে গিয়ে নানা ধরনের হয়রানি ও বিড়ম্বনার শিকার হতে হয় সাবেক শিক্ষার্থীদের। অনেকেই সনদ সংগ্রহের জন্য অনেক কর্মস্থল থেকে এসেও সনদ সংগ্রহ না করে ফিরতে হয়।

তবে এবার শিক্ষার্থীদের হয়রানি ও বিড়ম্বনা থেকে মুক্ত করতে শাখাটিকে অটোমেশন ও আধুনিকায়নের আওতায় আনার পরিকল্পনা করছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।
আলাপকালে এমনটি জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ও সার্টিফিকেট শাখার দায়িত্বে থাকা আলমগীর হোসেন সরকার।

তিনি বলেন, আমাদের ভবনের কাজ চলছে। সনদপত্র তোলার জন্য ব্যাংকে টাকা জমা দিতে হতো, অটোমেশনের আওতায় আসলে অনলাইনে টাকা জমা দিয়ে শিক্ষার্থীরা সনদপত্র তুলতে পারবে। ফলাফল তৈরির পরের দিন থেকেই সনদ তুলতে পারবে শিক্ষার্থীরা। তবে তা বাস্তবায়ন হতে কিছুদিন সময় লাগতে পারে।

অটোমেশনের আওতায় আসলে একজন শিক্ষার্থী কি কি সুযোগ সুবিধা পাবে এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অটোমেশনের ব্যাপারে প্রাথমিক পরিকল্পনা ও কমিটি গঠন করা হয়েছে। এটা পুরোপুরি চালু হলে শিক্ষার্থীদের জন্য কী কী সুযোগ সুবিধা থাকবে তা নিয়ে আমরা বসবো এবং সিদ্ধান্ত নিবো।

অটোমেশনের আওতায় আসলে শিক্ষার্থীদের হয়রানি কিছুটা কমবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, সেটা হলে শিক্ষার্থীদের এতো হয়রানির শিকার হতে হবে না। তারা দূর থেকে এসে অতি সহজেই এর সুবিধা নিতে পারবে।

শাখাটি অটোমেশনের আওতায় আসলে শিক্ষার্থীরা অনেক উপকৃত হবে জানিয়ে সাবেক শিক্ষার্থী আকরাম হোসাইন বলেন, রাবির সনদ শাখা অটোমেশনে দিকে আসলে আমরা যারা সাবেক শিক্ষার্থী আছি তারা অনেক উপকৃত হবো। আমরা অনেক দূর থেকে সনদ তুলতে এসে অনেক বিড়ম্বনার শিকার হতে হয়। অটোমেশনের আওতায় আসলে ভোগান্তি কিছুটা হলেও কমবে বলে আমি আশাবাদী।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ