ভোলাহাটে মাদ্রাসায় নিয়মবহির্ভূত নিয়োগ বন্ধের দাবি এলাকাবাসীর

আপডেট: মে ২৭, ২০২৪, ১২:৪২ অপরাহ্ণ


বি.এম রুবেল আহমেদ :


চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাটে আলালপুর দারুস সুন্নাত দাখিল মাদ্রাসায় নিয়মবহির্ভূত নিয়োগ কার্যক্রম বন্ধের দাবি এলাকাবাসীর। গত ১৯ এপ্রিল আমাদের নতুন সময় এবং দৈনিক চাঁপাই চিত্রের মাধ্যমে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির কথা শোনা গেলেও প্রতিষ্ঠান প্রধান কোনো পত্রিকার কাটিং দিতে ব্যর্থ হন।

আলালপুর দারুস সুন্নাত দাখিল মাদ্রাসার সুপারিন্টেন্ডেন্ট (সুপার) মো. বজলুর রহমান বলেন, আমরা নিয়মের মধ্যে থেকে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছি। কিন্তু নোটিশ বোর্ড কিংবা ফেসবুক আইডি সহ অন্যান্য মাধ্যমে প্রচার করা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি সঠিক উত্তর দিতে পারেননি।

গোপনীয়ভাবে নিয়োগ বাণিজ্য করার লক্ষ্যে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হওয়ায় এলাকায় ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তাদের মনের মত প্রার্থীকে দিয়ে আবেদন করানো হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে সমগ্র এলাকায়। বিগত দিনেও এমনভাবে নিয়োগ বাণিজ্য করেছে এই প্রতিষ্ঠান প্রধান বজলুর রহমান

। এটার পুনরাবৃত্তি দেখতে চাই না এলাকার অভিভাবক এবং সুশীল সমাজের মানুষ। এলাকাবাসীর দাবি এই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাতিল করে পুরো নিয়মতান্ত্রিক এবং নীতিমালা অনুসারে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য। যাতে সকলের আবেদন করার সুযোগ থাকে।

এবিষয়ে ভোলাহাট উপজেলা যুবলীগের সভাপতি এবং এলাকার সুশীল সমাজের প্রতিনিধি মো. রেজাউল করিম বাবলু বিশ্বাস বলেন, আমাদের আলালপুর দারুস সুন্নাত দাখিল মাদ্রাসায় যে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে তা পুরোটাই মনগড়া এবং নিয়মবহির্ভূত। এখানে কোনো আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন করার সুযোগ দেয়া হয়নি।

এবিষয়ে স্থানীয় আ’লীগ নেতা মো. শহিদুল ইসলাম রেনু অভিযোগ করেন, মাদ্রাসার সুপার নিজের স্বার্থসিদ্ধির জন্য গোপনীয়ভাবে লুকিয়ে সার্কুলার দিয়েছে যা এলাকার কোনো অভিভাবক এবং সুশীল সমাজের কেউ জানেনা! এই সার্কুলার বাতিল করে নতুনভাবে সার্কুলার না দিয়ে এলাকার জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আন্দোলন গড়ে তুলব।

এই নিয়োগ প্রক্রিয়ার ভোলাহাট উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের একাডেমিক সুপারভাইজার মো. হারুনর রশীদ বলেন, আলালপুর দারুস সুন্নাত দাখিল মাদ্রাসার নিয়োগের বিষয়ে আমরা অবগত না।

এবিষয়ে আলালপুর দারুস সুন্নাত দাখিল মাদ্রাসার একাধিক শিক্ষক এবং কর্মচারী অভিযোগ করেন, মাদ্রাসার নিয়োগের বিষয়টা আমরা কেউ জানিনা। আমাদের মাদ্রাসার সুপারিন্টেন্ডেন্ট (সুপার) মহোদয় গোপনীয়ভাবে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছেন।

কারা আবেদন করেছেন তাও আমরা জানিনা বলে জানান শিক্ষক কর্মচারীরা। শিক্ষক কর্মচারীরা আরও অভিযোগ করে বলেন, প্রতিষ্ঠান প্রধানের স্বৈরাচারী আচরণের কারণে আমরা কেউ প্রতিবাদ পর্যন্ত করতে পারিনা। এর একটা বিহিত হওয়া প্রয়োজন আছে বলে মনে করেন তারা।

এমতাবস্থায় এলাকাবাসী সহ অত্র মাদ্রাসার অধিকাংশ শিক্ষক কর্মচারীরা নতুন করে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সকলের আবেদনের সুযোগ সৃষ্টি করতে জোর দাবি জানান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ