মডেল রাউথার মৃত্যুর তদন্তে রাজশাহীতে মালদ্বীপ পুলিশ

আপডেট: এপ্রিল ৪, ২০১৭, ১২:২৭ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক



মডেল রাউথা আতিফের আত্মহত্যার তদন্ত করতে রাজশাহীতে এসেছেন মালদ্বীপের দুই পুলিশ কর্মকর্তা। গতকাল সোমবার বিকেলে বিমানযোগে তারা রাজশাহী এসে পৌঁছান। এই দুই পুলিশ কর্মকর্তা হলেন, সিনিয়র এএসপি মোহাম্মদ রিয়াজ ও সিনিয়র ইন্সপেক্টর আলী আহমেদ। রাজশাহী শাহ মখদুম বিমানবন্দরে এই দুই কর্মকর্তা এসে পৌঁছালে তাদের সঙ্গে দেখা করতে যান নগরীর শাহ মখদুম থানার ওসি জিলুøর রহমান এবং ওই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রাশেদুল হক।
রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের সহকারী কমিশনার আল আমিন হোসাইন বলেন, রাউথার আত্মহত্যার বিষয়ে শাহ মখদুম থানায় করা অপমৃত্যুর মামলাটি গত রোববার নগর গোয়েন্দা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। গতকাল বিকেলে মালদ্বীপের দুই পুলিশ কর্মকর্তা রাজশাহীতে এসেছেন। তারা রাজশাহীর ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ ছাত্রী মডেল রাওথা আতিফের আত্মহত্যার বিষয়ে তদন্ত করতে চায়। তবে আমাদের সঙ্গে এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে কথা হয়নি। মামলাটির তদন্তভার দেয়া হয়েছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক রাশেদুল হককে।
মহানগর পুলিশের মুখপাত্র ও সিনিয়র সহকারী কমিশনার ইফতে খায়ের আলম বলেন, বর্তমানে এ দুই পুলিশ কর্মকর্তা সার্কিট হাউজে অবস্থান করছেন। তারা এখনো কোথাও বের হন নি। আজ মঙ্গলবার বের হয়ে খোঁজ-খবর নেবেন।
প্রসঙ্গত, গত বুধবার (২৯ মার্চ) রাজশাহীর ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজের ছাত্রী হোস্টেলের ২০৯ নম্বর কক্ষে রাউথার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাউথার লাশ দেখতে রাজশাহীতে আসেন মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূত আয়েশাথ শান শাকির এবং তার মা-বাবাসহ পরিবারের সদস্যরা। শুক্রবার (৩১ মার্চ) মেডিকেল বোর্ড গঠনের মাধ্যমে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়। রাউথা আত্মহত্যা করেছেন উল্লেখ করে বোর্ড শনিবার ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন। ওইদিন দুপুরে রাজশাহীর হেতেম খাঁ কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ