মন্ত্রিসভায় রদবদলের আভাস সেতুমন্ত্রীর

আপডেট: জুলাই ১৯, ২০১৭, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


মন্ত্রিসভায় রদবদলের ইঙ্গিত দিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তবে তা কখন হতে পারে সে বিষয়ে কিছু বলেননি তিনি। এদিকে, উপ-প্রধানমন্ত্রী পদ সৃষ্টির বিষয়ে সম্প্রতি যে কথা উঠেছে, তা স্রেফ গুজব বলে জানিয়েছেন ওবায়দুল কাদের।
মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর বনানীতে সেতু ভবনে অস্ট্রেলিয়ার একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা জানান সরকারের প্রভাবশালী এই মন্ত্রী ও ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মন্ত্রিসভায় রদবদল আসবে কি না, তা প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ার। এ বিষয়ে কিছু বলতে পারব না। তবে মন্ত্রিসভায় একটা রদবদল হতে পারে। রদবদল কখন হবে, তা বলতে পারব না।’
তিনি আরো বলেন, ‘উপ-প্রধানমন্ত্রী, এটা স্রেফ একটা গুজব। এটার কোনো বাস্তবতা নেই। এটা একেবারে ভিত্তিহীন মিথ্যা কথা। এরকম কোনো পদ সৃষ্টি হবে না।’
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নিবন্ধিত দলের সঙ্গে সংলাপ হবে নির্বাচন কমিশনের। নির্বাচন কমিশন চাইলে রোডম্যাপ সংশোধনও করতে পারে। নির্বাচনকালে সেনাবাহিনী স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে ব্যবহৃত হবে কি না, সেটা নির্বাচন কমিশনের ওপর নির্ভর করছে।’
অস্ট্রেলিয়ান প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। নির্বাচনের প্রসঙ্গটিও এসেছিল। তবে অস্ট্রোলিয়ার হাইকমিশনার আমাদের কোনো পরামর্শ দেননি। উনি শুধু জানতে চেয়েছেন, নির্বাচন নিয়ে সরকার কী ভাবছে বা করছে।’
তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি
মন্ত্রিসভায় রদবদলের আভাস সেতুমন্ত্রীর
সোনার দেশ ডেস্ক
মন্ত্রিসভায় রদবদলের ইঙ্গিত দিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তবে তা কখন হতে পারে সে বিষয়ে কিছু বলেননি তিনি। এদিকে, উপ-প্রধানমন্ত্রী পদ সৃষ্টির বিষয়ে সম্প্রতি যে কথা উঠেছে, তা স্রেফ গুজব বলে জানিয়েছেন ওবায়দুল কাদের।
মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর বনানীতে সেতু ভবনে অস্ট্রেলিয়ার একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা জানান সরকারের প্রভাবশালী এই মন্ত্রী ও ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মন্ত্রিসভায় রদবদল আসবে কি না, তা প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ার। এ বিষয়ে কিছু বলতে পারব না। তবে মন্ত্রিসভায় একটা রদবদল হতে পারে। রদবদল কখন হবে, তা বলতে পারব না।’
তিনি আরো বলেন, ‘উপ-প্রধানমন্ত্রী, এটা স্রেফ একটা গুজব। এটার কোনো বাস্তবতা নেই। এটা একেবারে ভিত্তিহীন মিথ্যা কথা। এরকম কোনো পদ সৃষ্টি হবে না।’
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নিবন্ধিত দলের সঙ্গে সংলাপ হবে নির্বাচন কমিশনের। নির্বাচন কমিশন চাইলে রোডম্যাপ সংশোধনও করতে পারে। নির্বাচনকালে সেনাবাহিনী স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে ব্যবহৃত হবে কি না, সেটা নির্বাচন কমিশনের ওপর নির্ভর করছে।’
অস্ট্রেলিয়ান প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। নির্বাচনের প্রসঙ্গটিও এসেছিল। তবে অস্ট্রোলিয়ার হাইকমিশনার আমাদের কোনো পরামর্শ দেননি। উনি শুধু জানতে চেয়েছেন, নির্বাচন নিয়ে সরকার কী ভাবছে বা করছে।’
তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি