মসুলের অভিযান: ‘বড় ধরনের’ আক্রমণ শুরু করেছে কুর্দিরা

আপডেট: অক্টোবর ২০, ২০১৬, ১০:১৪ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক
ইরাকের ইসলামিক স্টেট (আইএস) নিয়ন্ত্রিত শহর মসুলের পূর্ব ও উত্তর দিক থেকে বড় ধরনের আক্রমণ শুরু করেছে কুর্দি যোদ্ধারা।
কুর্দিদের বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, ইরাকে আইএসের শেষ শক্তিকেন্দ্রটির চারপাশ ঘিরে ফেলার লক্ষ্যে এ অভিযান শুরু করা হয়েছে।
দক্ষিণ দিক থেকে ইরাকি সেনাবাহিনী মসুলের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, এই পর্যায়ে ইরাকের বিশেষ বাহিনীগুলোও এই অভিযানে যোগ দিয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, আইএস নেতারা মসুল ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে এমন ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। শহরটিতে এখনও আইএসের পাঁচ হাজারেরও বেশি সেনা রয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।
কুর্দি যোদ্ধারা জানিয়েছেন, তিনটি ফ্রন্ট ধরে অভিযান শুরু করেছেন তারা। সম্প্রতি ওই এলাকায় ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনী ও কুর্দি বাহিনীর সাফল্যের পথ ধরেই অভিযানটি শুরু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা।
এক বিবৃতিতে কুর্দি বাহিনী বলেছে, “আইএসআইএলের (আইএস) চলাচল নিয়ন্ত্রণ করতে নিকটবর্তী বেশ কিছু গ্রাম ও কৌশলগত এলাকাগুলোর ওপর নিয়ন্ত্রণ জোরদার করাই এ অভিযানের উদ্দেশ্য।”
ইরাকি মেজর জেনারেল মান আল সাদি জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার ভোররাতে ইরাকি বিশেষ বাহিনী মসুল অভিযানে যোগ দিয়েছে, তারা মসুলের নিকটবর্তী বাতাল্লা টাউনের দিকে অগ্রসর হচ্ছে।
যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন জোট বাহিনী বিমান হামলা চালিয়ে এ অভিযানে আইএস বিরোধী বাহিনীগুলোকে সর্মথন দিচ্ছে। এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর জেনারেল গ্যারি ভোলেস্কি বলেছেন, “মসুলের বাইরে আমি কিছু চলাচল লক্ষ্য করেছি; (আইএসের) নেতারা পালিয়ে যাচ্ছে আমরা এমন ইঙ্গিত পেয়েছি।” তবে কে পালিয়ে যাচ্ছে বা তারা কোথায় পালিয়ে যাচ্ছে, এগুলো নির্দিষ্ট করে বলেননি তিনি।
আইএসের শীর্ষ নেতা আবু বকর আল বাগদাদি কোথায় আছেন তা জানা যায়নি। কোনো কোনো প্রতিবেদনে তিনি মসুলে আছেন বলে বলা হয়েছে, কিন্তু অন্যগুলো বলছে, তিনি ইরাকের উত্তরাঞ্চলীয় এই শহরটি ছেড়ে চলে গেছেন।- বিডিনিউজ