মহাদেবপুরে গৃহবধূ মৃত্যুতে চারজন গ্রেফতার ৪

আপডেট: এপ্রিল ১২, ২০১৭, ১২:৩৬ পূর্বাহ্ণ

মহাদেবপুর প্রতিনিধি


নওগাঁর মহাদেবপুরে গৃহবধূ চুমকি রানী (১৯)র মৃত্যুতে স্বামী-শ্বশুরসহ চারজন গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরা হলেন, চুমকির স্বামী বিদ্যুৎ চন্দ্র বর্মন, শ্বশুর বিশ্বনাথ চন্দ্র বর্মন, শাশুড়ি নিন্দু বালা বর্মন ও স্বামীর বড় ভাই বিপ্লব চন্দ্র বর্মন। তাদেরকে গতকাল আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।
বিষয়টি নিশ্চিত করে মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, গত সোমবার রাতে মৃত চুমকি রাণীর বাবা নিরাঞ্জন চন্দ্র রায় বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করে। এরপর অভিযান চালিয়ে উপজেলার খাজুর উইনিয়ানের আলিদেওয়না গ্রামে চুমকির স্বামীর থেকে চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
জানা গেছে, গত আষাঢ় মাসে উপজেলার চেরাগপুর ইউনিয়নে রাবনা (বধুপুর) গ্রামের নিরাঞ্জন বর্মনের মেয়ে চুমকির সাথে খাজুর ইউনিয়নের আলিদেওনা গ্রামের পল্লী চিকিৎসক বিশ্বনাথ বর্মনের ছেলে ও কুড়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিওন বিদ্যুৎ বর্মনের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই চুমকির উপর তার শ্বশুর বাড়ির লোকেরা বিভিন্ন অজুহাতে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করত। নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে ১০ এপ্রিল সোমবার চুমকি রাণী কীটনাশক পান করে অচেতন হলে তাকে মহাদেবপুর হাসপাতালে নেওয়া হয়। এ সময় কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ