মহাদেবপুরে টাকা না দেওয়ায় কর্মসূচির কাজ থেকে বাদ দিলেন মেম্বার

আপডেট: নভেম্বর ২৮, ২০২২, ২:৩২ অপরাহ্ণ

নওগাঁ প্রতিনিধি:


নওগাঁর মহাদেবপুরে চাহিদা মতো টাকা না দেওয়ায় অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচির (ইজিপিপি) ৪০দিনের সরকারি মাটি কাটার কাজ থেকে বাদ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক মেম্বারের বিরুদ্ধে। এ অভিযোগ করেছেন উপজেলার উত্তরগ্রামের হতদরিদ্র, দিনমজুর মো: সাইদুল ইসলামের ছেলে মো: আরমান হোসেন।

তিনি উত্তরগ্রাম ইউনিয়নের এক নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো: রইচ উদ্দিন সরদারের (৪৫) বিরুদ্ধে গত রবিবার ২৭ নভেম্বর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি অভিযোগ দিয়েছেন।

আরমানের অভিযোগে জানা যায়, তার বাবা একজন হতদরিদ্র, দিনমজুর ও মৃদু বুদ্ধি প্রতিবন্ধী। সরকারিভাবে ৪০দিনের মাটি কাটার কর্মসূচির কাজ দিবে বলে আরমানের কাছে ৪হাজার টাকা চায় উত্তরগ্রাম ইউনিয়নের এক নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো: রইচ উদ্দিন সরদার।

কিন্তু সে টাকা দিতে না চাইলে তার বাবার নামটি ওই কর্মসূচির কাজ থেকে বাদ দিবে বলে জানায় ওই মেম্বার। বিষয়টি জানার জন্য সে গত ২৫নভেম্বর মেম্বারের মোবইলে কল দিয়ে জানতে চাইলে মেম্বার তাকে জানিয়ে দেয় সরকারি মাটি কাটার কাজ থেকে তার বাবার নামটি বাদ দেওয়া হয়েছে। এতে দিশেহারা হয়ে পড়ে সে। ফলে নিরুপায় হয়ে নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি অভিযোগ দিয়েছেন।

ভূক্তভোগী আরমান বলেন, হতদরিদ্র গরীব অসহায়দের জন্য সরকার বিনা পয়সায় ৪০দিনের মাটি কাটার কর্মসূচির কাজ দিচ্ছে। যেন আমাদের মতো হতদরিদ্ররা এই কাজ করে চলতে পারে। কিন্তু সেখানে মেম্বার আমার কাছে টাকা দাবি করে। আমি টাকা দিতে না পারায় আমার বাবার নামটি বাদ দিয়েছে বলে মেম্বার আমাকে জানিয়ে দেয়। তাই আমি অভিযোগ দিয়েছি। যেন এর একটা সঠিক বিচার হয়।

টাকা চাওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে মেম্বার রইচ উদ্দিন সরদার মুঠোফোনে কালবেলাকে বলেন, এবারে আমি ৪০দিনের সরকারি মাটি কাটার কর্মসূচির কাজের মোট পাঁচটি বরাদ্দ পেয়েছিলাম। আরমানের কাছ থেকে টাকা চাওয়ার প্রশ্নই আসে না।

বরং আমি আরমানের বাবার নামসহ ৬জনের লিস্ট দিয়েছিলাম। কিন্তু কোন কারণে তার বাবার নাম বাদ পড়ে যায়।
মহাদেবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: আবু হাসান কালবেলাকে বলেন, অভিযোগটি আমি এখনও দেখি নাই। অভিযোগ দেখে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।