মহাদেবপুরে দোকানগুলোতে ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড়

আপডেট: জুন ১৮, ২০১৭, ১:০৫ পূর্বাহ্ণ

মেহেদী হাসান,মহাদেবপুর


মহাদেবপুরে জমে উঠেছে ঈদের বাজার-সোনার দেশ

নওগাঁর মহাদেবপুরে পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে উপজেলা সদরের মার্কেটগুলোতে গার্মেন্টস, কসমেটিক, জুতা, ইলেকট্রনিক্স, তৈরি পোশাকের দোকানগুলোসহ ফুটপাতের দোকানগুলোতেও ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড়। ব্যবসায়ীরা বাহারী রঙের আধুনিক পোশাকে দোকানকে সুসজ্জিত করে ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন। ঈদের সময় যত ঘনিয়ে আসছে ততই বেচাকেনা বাড়ছে। তবে বাহুবলি, গাউন ফ্রগ ও লং টপসের চাহিদা তরুণীদের পছন্দের শীর্ষ তালিকায় রয়েছে। তবে শাড়ীসহ অন্যন্য পোশাকের দাম এবার চড়া হওয়ায় ক্রেতারা বিভিন্ন দোকান ঘুরে ঘুরে দাম যাচাই-বাছাই করে তাদের পছন্দের কাপড়-চোপড় কিনছে। এ কারণে ক্রেতাদেরকে বেশি সময় দিতে হচ্ছে দোকানীদের। অনেক ক্রেতা অভিযোগ করেন ঈদ উপলক্ষে কাপড় ব্যবসায়ীরা তাদের ইচ্ছা মতো দাম হাঁকছেন। যার কাছ থেকে যেভাবে পারছে দোকানীরা দাম বেশি নেওয়ার চেষ্টা করছে। বেচা-কেনা বাড়লেও দাম নিয়ে ক্রেতাদের সঙ্গে অনেক সময় ব্যয় করতে হচ্ছে। তরুনীদের পছন্দের পোশাক ছাড়াও এবার ঈদে ছেলেরা সুতি প্রিন্ট শার্ট ও প্রিন্ট পাঞ্জাবির প্রতি ঝুঁকেছে বেশি। সরেজমিনে গতকাল শনিবার সকালে মহাদেবপুর উপজেলা সদরের বিভিন্ন মার্কেটে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এবার ঈদকে ঘিরে বাহুবলি, গ্রাউন লং জামা, গাউন ফ্রগ জিন্স প্যান্ট, প্রিন্ট শার্ট, প্রিন্ট পাঞ্জাবি ছোটদের স্কাট, রাখিবন্ধন, থ্রিপিস, লীলাবতী লং টপস, পদ্মাবতী বেচাকেনা বেশি হচ্ছে। অনেক বিক্রেতা জানান, বেলা বাড়ার সাথে সাথে ক্রেতার সংখ্যাও বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং তা ইফতারের আগ মুহুর্ত পর্যন্ত এ ভিড় থাকে। তবে রোজা থেকে প্রচন্ড গরমে ক্রেতারা বেশিক্ষণ দোকানে দেরি না করে পছন্দসই পোশাকটি দাম মিটিয়ে নিয়ে চলে যাচ্ছে। ঈদের পোশাক কিনতে আসা গৃহিনী সাবিনা ইয়াসমিন,সাথী আক্তার, দেবরপুর গ্রামের সামিমা আক্তার সিফা ও আখেড়া গ্রামের মাহবুব আলম জানান, ধর্মীয় উৎসব বলে কথা। কেনাকাটা তো করতেই হবে। তাই আগে ছেলে- মেয়েদের পোশাক কিনতে এসেছি। দুই একদিন পর নিজেদের পোশাকটিও কিনবো। তবে তাদের একটাই আক্ষেপ শিশুদের পোশকের দাম প্রতিবারের মতো এবারও চাড়া। এবছর ধানের দাম বেশি থাকায় কৃষক-কৃষানীরা পছন্দের দেশীয় পোশাকের শাড়ি, থ্রিপিস, ফতুয়া, শার্ট, পানজাবী, শিশুদের পোশাক,জুতা ও প্রসাধনী সামগ্রীর দাম বেশি হওয়া সত্বেও কিনছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ