মাইক্রোসফট ট্রান্সলেটরে বাংলা ভাষা

আপডেট: এপ্রিল ৭, ২০১৭, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বাংলাদেশ ও ভারত উপমহাদেশে বাংলা ভাষাভাষীদের সুবিধায় অনুবাদক প্ল্যাটফর্ম ‘মাইক্রোসফট ট্রান্সলেটর’-এ বাংলা ভাষা যুক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফট।
মাইক্রোসফট বাংলাদেশ বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়।
বাংলাদেশ ও ভারত উপমহাদেশে প্রায় ২১ কোটি মানুষের ভাষা বাংলা।
মাইক্রোসফট বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোনিয়া বশির কবির বলেন, “বাংলাদেশ ও এ দেশের মানুষের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকে মাইক্রোসফট ট্রান্সলেটরে বাংলা ভাষা যুক্ত করেছি আমরা। বিশ্বের সব মানুষ ও প্রতিষ্ঠানগুলোর দক্ষতা অর্জনের পাশাপাশি ভাষার বৈচিত্র্যতা যেন বিশ্বব্যাপী একে অপরের সঙ্গে যোগাযোগের ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি না করে, সে লক্ষ্যে কাজ করছি আমরা।
“বিশ্বব্যাপী সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এমনকি ব্যক্তিগতভাবে যেন মোবাইল ফার্স্ট-ক্লাউড ফার্স্ট ওয়ার্ল্ডের মাধ্যমে যুক্ত থাকার পাশাপাশি অনায়াসে একে অপরের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারে, তা নিশ্চিৎ করতেই আমাদের এ পদক্ষেপ।”
স্থানীয়রা, পর্যটক কিংবা বিশ্বের যে কোনো মানুষ উইন্ডোজ, অ্যান্ড্রয়েড, কিন্ডল ও আইওএস ডিভাইসে মাইক্রোসফট ট্রান্সলেটর অ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন।
মোবাইল অ্যাপ কিংবা ওয়েবে গিয়ে মাইক্রোসফট ট্রান্সলেটর লাইভ ফিচারের মাধ্যমে নয়টি ভাষা থেকে বাংলা ভাষায় অনুবাদ করার সুবিধা পাবেন ব্যবহারকারীরা।
গ্রাহক সহায়তা ও সেবা, ওয়েব লোকালাইজেশন বা স্থানীয়করণ, প্রশিক্ষণ বা অভ্যন্তরীণ যোগাযোগের উদ্দেশ্যে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলো অনায়াসে তাদের বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে মাইক্রোসফটের ট্রান্সলেটর টেক্সট এপিআই যুক্ত করতে পারবে বলে জানায় মাইক্রোসফট।
সোনিয়া বশির কবির বলেন, “প্ল্যাটফর্মটিতে বাংলা ভাষা যুক্ত করার ফলে বিশ্বের অন্যান্য দেশ বাংলাদেশ এবং এদেশের সংস্কৃতি সম্পর্কে ধারণা পাবে। মাইক্রোসফট ট্রান্সলেটরে সমর্থনযোগ্য ভিন্ন ভিন্ন নয়টি ভাষায় কথা বলা মানুষের সঙ্গে সহজেই যোগাযোগ করতে পারবেন বাংলা ভাষাভাষীরা। সর্বোপরি, সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে এটি একটি ইতিবাচক পদক্ষেপ বলে আমি মনে করি।”
বিং-এর আউটলুক মাইক্রোসফট ট্রান্সলেটর, কর্টানা, এজ, শেয়ারপয়েন্ট ও ইয়ামারে মাইক্রোসফট ট্রান্সলেটর ইতোমধ্যে যুক্ত করা হয়েছে।
ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ার পয়েন্ট কিংবা পিডিএফ ফাইলে অনুবাদ করতে চাইলে ‘ডকুমেন্ট ট্রান্সলেটর’-এর মাধ্যমে তা অনায়াসে করা যাবে। ‘ডকুমেন্ট ট্রান্সলেটর’ একটি ওপেন-সোর্স বা মুক্ত অ্যাপ্লিকেশন যা জিটহাব থেকে ব্যবহারযোগ্য।
ব্যক্তিগতভাবে কিংবা যে কোনো প্রতিষ্ঠান সহজেই কয়েকটি ভাষার সমন্বয়ে বিনামূল্যে ‘মাইক্রোসফট ট্রান্সলেটর ওয়েব উইজেট’ নিজেদের ওয়েবসাইটে যুক্ত করতে পারবেন। বিশ্বব্যাপী স্কাইপ ফর উইন্ডোজ ডেস্কটপ অ্যাপ এবং স্কাইপ ফর উইন্ডোজ ফর রিয়েল-টাইমের ইন্সট্যান্ট ম্যাসেজিং-এর মাধ্যমে যোগাযোগের ক্ষেত্রে বাংলা ভাষা ব্যবহার করা যাবে।
এছাড়া ডেভলপাররা তাদের নিজস্ব পণ্য কিংবা অ্যাপে ডেভলপার অপশন সমর্থনযোগ্য মাইক্রোসফট ট্রান্সলেটর এপিআই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করতে পারবেন বলে জানায় প্রতিষ্ঠানটি।
মাইক্রোসফট ট্রান্সলেটর সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আগ্রহীদের

https://www.microsoft.com/en-us/translator/mt.aspx

https://www.microsoft.com/en-us/translator/getstarted.aspx,  https://translator.microsoft.com/apps/

ওয়েবসাইটের যেতে বলেছে প্রতিষ্ঠানটি।- বিডিনিউজ