মাছ চাষে সাবলম্বী পুঠিয়ার নয়ন ক্লাবের সদস্যরা

আপডেট: জানুয়ারি ১৮, ২০১৭, ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ

বজলুর রশিদ, পুঠিয়া



রাজশাহীর পুঠিয়ার শিলমাড়িয়া ইউনিয়নের উদনপুর গ্রামের ১৭ জন সল্পশিক্ষিত দরিদ্র বেকারদের নিয়ে গঠিত উদনপুর নয়ন ক্লাব নামের একটি সংগঠন মাছ চাষ করে বিপ্লব ঘটিয়েছে। মৎস্য চাষ প্রযুক্তি সেবা প্রকল্পের (সিবিজি) অর্থায়নে ক্লাবের সদস্যরা এখন স্বাবলম্বী হয়েছেন।
উপজেলা মৎস্য অফিস সূত্রে জানা গেছে, পুঠিয়া উপজেলার শিলমাড়িয়া ইউনিয়নের উদনপুর গ্রামে গত বছরে মার্চ মাসে ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্য চাষ প্রযুক্তি সেবা প্রকল্পের (সিবিজি) আওতায় আনা হয় নয়ন ক্লাবকে। মৎস্য চাষের প্রতি আগ্রহ দেখে ৪ হেক্টর পুকুরে মাছ চাষের জন্য তাদের ২ লাখ টাকার মাছ চাষের বিভিন্ন উপকরণ প্রদান এবং প্রতিনিয়ত তাদের বিভিন্ন পরামর্শ দেয়া হয়।
ক্লাবের সভাপতি মোজাফ্ফর হোসেন জানান, ১৯৯৪ সালে উদনপুর গ্রামের সল্প শিক্ষিত বেকার দিনমজুর ভ্যান চালকদের সমন্নয়ে ১৭ জন সদস্যকে নিয়ে গঠন করা হয় উদনপুর নয়ন ক্লাব। ২০১১ সালে ক্লাবটি মাছ চাষের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়। পরে ২০১৫ সালে প্রতি বছর ৪ লাখ টাকায় ১০ বছরের জন্য ২০ বিঘা পুকুর লিজ নেয়া হয়। সেসময় উপজেলা মৎস্য অফিস মৎস্য প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আমাদের কর্মকা- সম্পর্কে জানতে পারে। জানার পর তাদের পুকুর পরিদর্শন করে ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্য চাষ প্রযুক্তিসেবা প্রকল্প (সিবিজি) ২য় পর্যায় আওতায় আনা হয়। বর্তমানে তারা মাছ চাষের আয় থেকে প্রতি বছর প্রতি সদস্য ১ লাখ টাকার ওপরে ভাগ পায়। তাদের সাফল্য দেখে এলাকার অনেকেই এখন মাছ চাষের প্রতি উৎসাহী হয়ে সমিতি গঠনের মাধ্যমে মাছ চাষ করছেন। সিবিজির অর্থ ও উপজেলা মৎস্য অফিসের পরার্মশে ১ বছরের মধ্যে ৪ হেক্টর আয়তনের পুকুর থেকে তারা ৫৯ লাখ টাকার মাছ বিক্রি করেছেন। বর্তমানে পুকুরে প্রায় ১৭ লাখ ৯২ হাজার টাকা মূল্যের প্রায় ৩ হাজার ৩শ কেজি মাছ রয়েছে।
এ ব্যাপারে উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সাহেদ আলী জানান, উদনপুর নয়ন ক্লাবের সদস্যরা ও তিন জন লিফ মিলে একটি গ্রুপ তৈরি করা হয়। সেই গ্রুপকে ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্য চাষ প্রযুক্তিসেবা প্রকল্প (সিবিজি) ২য় পর্যায় এর আওতায় প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। প্রকল্পের অর্থ দিয়ে মাছের পোনা, মাছের খাবারসহ চাষের জন্য বিভিন্ন উপকরণ দেয়া হয়। আমরা সরাসরি যোগাযোগ ও সার্বক্ষণিক পরামর্শের কারণে অল্প সময়ে তারা মাছ চাষে বিপ্লব ঘটাতে পেরেছে। উপজেলার ১০টি গ্রুপের মধ্যে নয়ন ক্লাবটি সেরা গ্রুপ।