মাদাগাস্কারে ঘূর্ণিঝড়ে মৃত্যু বেড়ে ১২০

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২২, ১২:৩০ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলের দেশ মাদাগাস্কারে ঘূর্ণিঝড় বাতসিরাই-র আঘাতে বিপর্যস্ত জনজীবন। স্থানীয় সময় শুক্রবার (১১ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত ১২০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে দেশটিতে। ঝড়ের তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে বহু ঘরবাড়ি ও স্থাপনা। উদ্বাস্তু হয়ে পড়েছেন অন্তত ৩০ হাজার মানুষ। ভারি বৃষ্টির কারণে সৃষ্ট বন্যায় পানিবন্দি আরও কয়েক হাজার মানুষ।

জানা গেছে, শনিবার (৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে ঘন্টায় ১৬৫ কিলোমিটার বেগে আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড় বাতসিরাই। দুই সপ্তাহ পর ভারত মহাসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় বাতসিরাই প্রবল বেগে আঘাত হানে দেশটির দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে।

রাষ্ট্রীয় দুর্যোগ ত্রাণ সংস্থা এর আগে জানিয়েছিল, দক্ষিণ-পূর্ব মাদাগাস্কারের শুধু ইকংগো জেলায় মারা গেছেন ৮৭ জন। শুক্রবার পর্যন্ত সেখানে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১১ জনে।

সংস্থাটি আরও জানিয়েছে যে, ঘূর্ণিঝড়টি প্রায় এক লাখ ২৪ হাজার মানুষের বাড়িঘর ধ্বংসস্তূপে পরিণত করেছে। বাস্তুচ্যুত হয়েছে আরও ৩০ হাজার মানুষ।

জার্মান বেসরকারি সাহায্য সংস্থা ওয়েলথাঙ্গারহিলফ জানিয়েছে, ভূমিধসের কারণে রাস্তা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বাতসিরাই-এর কারণে ক্ষতিগ্রস্ত সব গ্রামে পৌঁছতে আরও পাঁচ দিন সময় লাগতে পারে। এসব গ্রামের মানুষ এখনো পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছেন।

জার্মানি, ফ্রান্স এবং অন্যান্য দেশের উদ্ধারকারী দল স্থানীয় উদ্ধারকারী টিমকে সহায়তা অব্যাহত রেখেছে বলে জানা গেছে।

এদিকে, গত সোমবার দেশটির প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড্রি রাজোয়েলিনা ঝড়ে বিধ্বস্ত মানঞ্জারি শহর পরিদর্শনে যান। এসময় তিনি ক্ষতিগ্রস্তদের সব ধরনের সহায়তা প্রদানের আশ্বাস দেন।
এর আগে ঘূর্ণিঝড় অ্যানার আঘাতে দেশটিতে ৫৫ জনের মৃত্যু হয়। উদ্বাস্তু হয়ে পড়ে প্রায় দেড় লাখ মানুষ।

এছাড়া অ্যানার আঘাতে মোজাম্বিক ও মালউইতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। তিনটি দেশে মোট মৃত্যু হয় ৮৮ জনের।
তথসূত্র: আল-জাজিরা, জাগোনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ