মাদ্রাসার সুপারের বিরুদ্ধে অবৈধভাবে শিক্ষক নিয়োগের অভিযোগ

আপডেট: জানুয়ারি ২, ২০১৭, ১১:৫৩ অপরাহ্ণ

বাগমারা প্রতিনিধি


রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার আউচপাড়া ইউনিয়নের রক্ষিতপাড়া দ্বিমুখী দাখিল মাদ্রাসায় সরকারি নীতিমালার তোয়াক্কা না করে ভুয়া কাগজের মাধ্যমে অবৈধভাবে শিক্ষক নিয়োগের অভিযোগ উঠেছে মাদ্রাসার সুপারের বিরুদ্ধে। ওই ঘটনায় এলাকার অর্ধশত মানুষ বাদী হয়ে গতকাল সোমবার দুপুরে বাগমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন।
লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, রক্ষিতপাড়া মাদ্রাসার সুপার আবদুল ওয়াহেদ সরকারি নীতিমালার তোয়াক্কা না করে নিজের ইচ্ছেমতো সকল তথ্য গোপন করে ভুয়া কাগজপত্রের মাধ্যমে মাদ্রাসার জুনিয়র সহকারী শিক্ষক নিয়োগের কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। এলাকার লোকজন বিষয়টি জানার পর বাধা দিলে সুপার কৌশলে শিক্ষক নিয়োগের কার্যক্রম বন্ধ করে দেন। শিক্ষক নিয়োগের কার্যক্রম বন্ধ করলেও সুপার কৌশলে ভুয়া কাগজপত্র তৈরী করে মাদ্রাসার সভাপতিকে নিয়ে আগের তারিখ দিয়ে নিয়োগ কার্যক্রম শেষ করেন। বিষয়টি এলাকার লোকজন জানার পর গতকাল সোমবার দুপুরে এলাকার অর্ধশত স্বাক্ষর করে নিয়োগের বিষয়টি বন্ধের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন। গোপনে শিক্ষক নিয়োগ ছাড়াও সুপার আবদুল ওয়াহেদ বিভিন্ন অপকর্মের সঙ্গে জড়িত থাকে বলেও এলাকার লোকজন জানান। আবদুল ওয়াহেদের এমন কর্মকা-ের জন্য এলাকার মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
বিষয়টি নিয়ে সুপার আবদুল ওয়াহেদের সঙ্গে একাধিকবার চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয় নি। অপরদিকে মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি রেজাউল ইসালম শিক্ষক নিয়োগের বিষয়টি স্থগিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাছরিন আক্তার অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।