মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ে পরামর্শ দেয়া হচ্ছে আলোচনা সভায় বক্তারা

আপডেট: অক্টোবর ২৩, ২০১৬, ১১:২২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
কিশোর-কিশোরীদের ১৮ বছরের মধ্যে শারীরিক যেসব পরিবর্তন ঘটে তা নিয়ে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। তাদের শারীরিক ও যৌন বিষয়ক পরিবর্তনগুলো বাবা-মাকে বলতে সংকোচ বোধ করে। এসময় তারা বন্ধু বা সমবয়সীদের কাছে পরিস্থিতি মোকাবেলার উপায় সম্পর্কে জানতে চায়। কিন্তু সমবয়সীদের এই সম্পর্কে কোনো জ্ঞান না থাকায় উপযুক্ত পরামর্শ দিতে পারে না। ফলে কিশোর-কিশোরীরা বিপদের সম্মুখিন হয়। এমন অবস্থা থেকে তাদের উদ্ধারের জন্য অঝঊঞ প্রকল্পের মাধ্যমে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতনতামূলক পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। গতকাল রোববার বেলা ১১টায় নগরীর এফপিএবি সভাকক্ষে কিশোর-কিশোরীদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় ও পরামর্শ আলোচনা সভায় এসব কথা ওঠে আসে।
সভায় বলা হয়, এফপিএবি রাজশাহী শাখার সহযোগিতায় অ্যাডভোকেসি এসআরএইচআর এডুকেশন বাই টিচার (অঝঊঞ) প্রকল্পের মাধ্যমে জেলার পবা উপজেলার ৪২টি মাদ্রাসা ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী কিশোর-কিশোরীদের সচেতনতামূলক পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। এজন্য বিদ্যালয়ের একজন নারী ও পুরুষ মোট দুইজন শিক্ষককে শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ প্রদানের উদ্দেশ্যে সচেতনতা প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি তাদের বাবা-মাকেও যৌন ও স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতনতামূলক পরামর্শ দেয়া হচ্ছে বলে জানানো হয় আলোচনায়। এছাড়া রাজশাহী মহানগর এলাকার মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে এ প্রকল্পের কাজ শুরুর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
এফপিএবি রাজশাহী জেলার কর্মকর্তা অরুণ কুমার শীলের সভাপতিত্বে সভায় অতিথি ছিলেন, প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর মোস্তাফিজুর রহমান, সহকারী জেলা কর্মকর্তা এসএম মিজানুর রহমান, কো-অর্ডিনেটর (অর্থ)  মো. আকতারুজ্জামান ও প্রশাসনিক কর্মকর্তা শফিকুল ইসলামসহ রাজশাহীতে কর্মরত স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকার সাংবাদিকরা অংশ নেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ