‘মানবতাবিরোধী অপরাধ করেছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী’

আপডেট: মার্চ ১১, ২০১৭, ১২:০৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



জাতিসংঘ বলেছে, রাখাইন রাজ্যে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলমানদের বিরুদ্ধে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী মানবতাবিরোধী অপরাধ করেছে। বৃহস্পতিবার রাতে বিবিসিকে এ কথা বলেছেন মিয়ানমার ঘুরে আসা জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক বিশেষ দূত ইয়াংহি লি।
গত বছর গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত দেশটির ক্ষমতাসীন দল এনএলডির প্রধান অং সান সুচি অবশ্য এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তার দলের মুখপাত্র দাবি করেছেন, এই অভিযোগ অতিরঞ্জিত ও মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ বিষয়। রোহিঙ্গা ইস্যু আন্তর্জাতিক ইস্যু নয়।
বিশেষ দূত ইয়াংহি লিকে অবশ্য মিয়ানমারের সংঘাতপূর্ণ রাখাইন রাজ্যের সব স্থানে যেতে দেওয়া হয়নি। তবে তিনি বাংলাদেশের কক্সবাজারে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তাদের বরাত দিয়েই তিনি জানিয়েছেন, রাখাইনের পরিস্থিতি তিনি যা আশা করেছিলেন তারচেয়েও ভয়াবহ।
তিনি বলেন, ‘আমি একে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ বলব। বার্মিজ, মিয়ানমারের সেনাবাহিনী, সীমান্তরক্ষী বাহিনী অথবা পুলিশ অথবা নিরাপত্তা বাহিনী সুনিশ্চিতভাবেই মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ করেছে।’
জাতিসংঘের এই বিশেষ দূত জানান, নিপীড়নের সমস্যাটি মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে নিয়মতান্ত্রিক ব্যাপার। অং সান সুচি সরকারকে এর কিছুটা দায় নেয়ারও আহ্বান জানিয়েছেন ইয়াংহি।
তিনি বলেন, ‘এসব ভয়াবহ নির্যাতন এবং অত্যন্ত অমানবিক নির্যাতন যেগুলো তারা নিজেদের লোকদের ওপর করেছে দিনের শেষে বেসামরিক সরকারকেই তার জবাব দিতে হবে।’- রাইজিংবিডি

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ