মানবদেহে কোভ্যাক্সিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু

আপডেট: জুলাই ২৫, ২০২০, ১:৫১ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


ভারতের তৈরি করোনাভাইরাসের সম্ভাব্য টিকা কোভ্যাক্সিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু হয়েছে। শুক্রবার দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেসে (এআইইএমএস) ৩০ বছর বয়সী এক যুবককে প্রথম ডোজ দেওয়ার মাধ্যমে মানবদেহে পরীক্ষামূলকভাবে এই টিকা প্রয়োগের ধাপে পা দিলো ভারত।
কোভিড-১৯ এর টিকা দেওয়ার আগে ১২ স্বেচ্ছাসেবকের রক্ত ও নাসারন্ধ্রের পরীক্ষা করা হয়। তাদের মধ্যে ১০ জন স্বাস্থ্যবান পুরুষকে প্রথম ধাপের টিকা পরীক্ষার জন্য এদিন বাছাই করা হয়। এথিকস কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে তাদের স্বাস্থ্য বিবেচনা করে প্রথম ডোজ দেন ডাক্তাররা। এই ট্রায়ালে এই মাসে ১০০ স্বাস্থ্যবান ব্যক্তিকে এআইআইএমএসে টিকা প্রয়োগ করা হবে। অবশ্য তাদের অনেক পরীক্ষা নিরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হবে।
আইসিএমআর ও ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলোজির সঙ্গে সমন্বয় করে হায়দরাবাদের প্রতিষ্ঠান ভারত বায়োটেক কোভ্যাক্সিনের উদ্ভাবন করেছে। সম্প্রতি ভারতের ওষুধ নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান ডিসিজিআই এটি মানবদেহে প্রয়োগের অনুমোদন দেয়।
প্রথম ধাপে ১৮ থেকে ৫৫ বছর বয়সী ৩৭৫ জন সুস্থ মানুষের ওপর পরীক্ষা চালানো হবে। অন্তঃসত্ত্বা নয় এমন নারীরাও এতে অংশ নিতে পারবেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা পিটিআই।
এআইআইএমএস পরিচালক ডা. রন্দিপ গুলেরিয়া জানান, দ্বিতীয় ধাপে ১২ থেকে ৬৫ বছর বয়সী ৭৫০ জনের উপর টিকা প্রয়োগ করা হবে। এরই মধ্যে পরীক্ষার জন্য স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে ১৮শ জনের মতো লোক নিবন্ধন করেছেন। এই ধাপের পরীক্ষা নিয়ে রন্দিপ বলেছেন, ‘প্রথম ধাপে আমরা দেখবো টিকা নিরাপদ কিনা, শুরুতে এটাই গুরুত্বপূর্ণ এবং ডোজের মাত্রাও বিবেচনা করা হবে।’
তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি