মান্দার সেই ইটভাটায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

আপডেট: নভেম্বর ১৮, ২০১৯, ১:০৪ পূর্বাহ্ণ

মান্দা প্রতিনিধি


নওগাঁর মান্দায় বহুল আলোচিত সেই ইটভাটায় অভিযান পরিচালনা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় ভাটায় বিপুল পরিমান জ্বালানি কাঠ মজুদ করার অভিযোগে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গতকাল রোববার দুপুরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) এসএম হাবিবুল হাসান এ অভিযান পরিচালনা করেন।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এসএম হাবিবুল হাসান জানান, তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের সাবাই বাজারের অদূরে মেসার্স যমুনা ব্রিকস নামের ইটভাটায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। ভাটায় অবৈধভাবে বিপুল পরিমান জ্বালানি কাঠ মজুদ ও নিয়ম বহির্ভূতভাবে ভাটা পরিচালনা করার অভিযোগে মালিক কার্তিক চন্দ্র মন্ডলকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আরো বলেন, অভিযানে ওই ভাটার প্রায় ১০ হাজার কাঁটাইট ধ্বংস ও মজুদকৃত জ্বালানি কাঠ সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে মালিককে। এসময় মান্দা থানার উপপরিদর্শক আমিনুল ইসলাম ও সহকারি উপপরিদর্শক এরশাদ আলীসহ সঙ্গীয় ফোর্স উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কের পাশে মান্দা উপজেলার সাবাইহাট এলাকায় ঝাঁঝরের মোড়ে গোসাইপুর গ্রামের কার্তিক চন্দ্র মন্ডল নামে প্রভাবশালী একব্যক্তি ফিক্সড চিমনির সাহায্যে ভাটাটিতে দীর্ঘদিন ধরে ইট পোড়ানোর কাজ করে আসছিলেন। নাম দেয়া হয়েছে মেসার্স যমুনা ব্রিক্স।
ভাটার মাত্র ২৫০ মিটার দুরে রয়েছে একরুখী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও একরুখী উচ্চ বিদ্যালয়। রয়েছে দুটি আম বাগানসহ আবাসিক এলাকা। ভাটায় ইট পোড়ানো শুরু হলেই প্রতিষ্ঠান দুটির শিক্ষার্থীরা মাঝে মধ্যে অসুস্থ হয়ে পড়ে। এবারও স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছে শিক্ষার্থীরা।
পরিবেশের তোয়াক্কা না করেই চলতি মৌসুমে ভাটায় নতুন ইটকাটা শুরু হয়েছে। কয়লার পরিবর্তে মজুদ করা হয়েছে বিপুল পরিমান জ্বালানি কাঠ। ইট পোড়ানোর কাজ শুরু করা হলে প্রতিবছরের ন্যায় এবারও স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়বে ওই দুটি বিদ্যালয়ের অন্ততঃ পাঁচ শতাধিক শিক্ষার্থী।